আখাউড়ায় মাটির নিচ থেকে উদ্ধার হওয়া রোপ্য মুদ্রাগুলো জেলা প্রশাসকের কাছে হস্তান্তর

31 August, 2015 : 5:44 pm ১৫

স্টাফ রিপোর্টার
গত শনিবার আখাউড়া উপজেলার গঙ্গানগর গ্রামের জমিদার বাড়ীর  মন্দিরের পাশ থেকে উদ্ধার হওয়া রোপ্যমুদ্রা গুলো অবশেষে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসকের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় আখাউড়া থানা পুলিশ এবং আখাউড়া উপজেলার নিবাহী কর্মকর্তা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এসে রোপ্য মুদ্রাগুলো হস্তান্তর করেন।  এ সময় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক ড. মুহাম্মদ মোশাররফ হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, মাটির নিচ থেকে উদ্ধার হওয়া মুদ্রা গুলো দুর্লভ মুদ্রা। এগুলো ব্রিটিশ আমলের, আমরা জাতীয় জাদুঘরের মহাপরিচালকের সাথে কথা বলেছি মুদ্রাগুলো হস্তান্তরের ব্যাপারে। খুব শিঘ্রই মুদ্রাগুলো তাদের কাছে হস্তান্তর করা হবে। এর আগ পর্যন্ত মুদ্রাগুলো জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের ট্রেজারিতে জমা রাখা হবে। মুদ্রা হস্তান্তরকালে উপস্থিত ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ জহিরুল ইসলাম খান, আখাউড়া উপজেলার ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তা মো: আরিফুল ইসলাম, নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট (এনডিসি) সাব্বির আহমেদ, আখাউড়া থানার উপ-পরিদর্শক মিজানুর রহমান পাটোয়ারী, সুলতানপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান লায়ন ফিরোজুর রহমান ওলিও, জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক ওসমান গণি সজিব প্রমুখ।
উল্লেখ্য গত শনিবার সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার মোগড়া ইউনিয়নের গঙ্গানগর গ্রামের জমিদার দুর্গাচরণ রায় চৌধুরীর বাড়ীর দূর্গামন্দিরের জায়গা সম্প্রসারন করার সময় শ্রমিকেরা মাটির নিচ থেকে একটি তামার হাড়ির ভেতরে রক্ষিত ৪শ’ ৮৬ পিস রোপ্যমুদ্রার সন্ধ্যান পায়। খবর পেয়ে আখাউড়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে মুদ্রা উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যান। মুদ্রাগুলোর প্রতিটি গায়ে রানী ভিক্টোরিয়া এবং এডওয়ার্ড বিলের ছবি রয়েছে। এগুলো ১৮ শতকের ভারতীয় রোপ্যমুদ্রা বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।

[gs-fb-comments]