বাজারে সবজি লাপাত্তা

1 September, 2015 : 8:56 am ২২৫

মোহাম্মদ রবিউল্লাহ: রাজধানীর কাঁচাবাজারে মৌসুমী সবজির দাম গত কয়েক দিন ধরে বেড়েই চলেছে। ব্যবসায়ীরা এ জন্য বন্যা, অতিবৃষ্টি ও কম সরবরাহকেই দায়ী করছেন। কৃষি বিভাগ জানিয়েছে, অতিরিক্ত বৃষ্টির পানিতে সবজির মাঠ তলিয়ে যাওয়ায় সরবরাহে সংকট তৈরি হয়েছে তাতে রাজধানীর কাঁচাবাজারে সবজির দাম বেড়ে গেছে। রাজধানীর বাজার ঘুরে দেখা যায়, কাঁচা মরিচের দাম ২০০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। অনেক ক্রেতা জানান, রাজধানীর প্রতিটি বাজারে ২/১ দিনে সবজির দাম প্রতি কেজিতে ৫ টাকা করে বেড়েছে। একদিন আগেই কাঁচা মরিচের কেজি ১৮০ টাকা ধরে বিক্রি হয়েছে। কাঠাল বাগান কাঁচা বাজারের ক্রেতা মাইনুল হোসাইন সোমবার সকালে জানান, রোববারই আমি বেগুন ৬০ টাকা কেজি ক্রয় করেছি কিন্তু একদিনের মাথায় ১০ টাকা বেশি ৭০ টাকা কেজি ধরে বিক্রি করা হচ্ছে আজ। এদিকে কাওরান বাজারের পাইকারি সবজি ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি ওমর ফারুক বলেন,  মৌসুমী সবজির আমদানি গত বছরের  সময়ের চেয়ে এ বছর ৪০ শতাংশ কমেছে। এই বছরে সবজির অবস্থা খুবই খারাপ যাচ্ছে। চিচিঙ্গা, ঝিঙ্গা, পটল, ধুন্দুল ও বরবটির দাম গত বছর কেজি প্রতি ২০ টাকার মধ্যেই ছিল।
ওমর ফারুক আরো বলেন, এ বছর এ সবজিগুলো ৪০-৫০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। চাল কুমড়া বিক্রি হয়েছিল ১০ টাকা প্রতিটি। কিন্তু এ বছর তার দাম ৪০ টাকা করে বিক্রি করা হচ্ছে। সাধারণত পুঁইশাক ১০ টাকা কেজি ধরে বিক্রি হয় কিন্তু এ বছর পুঁইশাক ২৫ টাকা কেজি ধরে বিক্রি হচ্ছে।

কৃষি অধিদফতরের মহাপরিচালক হামিদুর রহমান জানান, দেশের উত্তরাঞ্চলসহ খুলনা ও যশোরের উপকূলীয় অঞ্চলের ৩ লাখ হেক্টর কৃষি জমি রয়েছে। এর মধ্যে ১৩ হাজার হেক্টর জমি বৃষ্টি ও বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে। তাতে রাজধানীর কাঁচাবাজারে কিছুটা প্রভাব ফেলেছে। তবে বন্যা ও বৃষ্টিই সবজির মূল্য বৃদ্ধির মূল কারণ নয় বলে হামিদুর রহমান জানান। এক্ষেত্রে কৃষি অধিদফতরের মহাপরিচালক পরিবহনকেও দায়ী করেছেন। উদাহরণ হিসেবে তিনি মাওয়া ফেরি ঘাটকে দায়ী করেছেন। এ ঘাটের ট্রাকগুলোকে দীর্ঘ সময় ধরে অপেক্ষা করতে হয় সবজি বোঝাই ট্টাক নিয়ে।

দ্য ডেইলি স্টার থেকে অনূদিত

[gs-fb-comments]
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com