স্টাফ রিপোর্টার
ছবি তোলার জন্য লাইনে দাড়ানো নিয়ে বির্তকের জের ধরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়ন পরিষদ কক্ষে ভোটার তালিকা হাল নাগাদ কেন্দ্রে হামলা চালিয়ে কক্ষের দরজা-জানালা, আসবাবপত্র ও কম্পিউটার ভাংচুর করে প্রায় ১০‘লাখ টাকার ক্ষতি সাধন করেছে একদল দুবৃত্ত। এসময় তথ্য সংগ্রহ কাজে নিয়োজিত ৩ কর্মীও আহত হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়ন পরিষদ কক্ষে। এ ব্যাপারে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়ন পরিষদ কক্ষে ভোটার তালিকা হাল নাগাদ কার্যক্রমে ছবি তোলার কাজ চলছিল। এ সময় লাইনে আগে-পিছে দাঁড়ানোকে কেন্দ্র করে একই গ্রামের শহীদুল ইসলামের সাথে তথ্য সংগ্রহকারীদের কথা কাটকাটি হয়। পরে শহীদুলের নেতৃত্বে একদল লোক দেশী লাঠি বল্লম নিয়ে তথ্য কেন্দ্রে হামলা চালিয়ে কক্ষের দরজা জানালা, আসবাবপত্র, ৪টি লেপটপ, ৪টি ডিজিটাল ক্যামেরা, ৪টি ডিজিটাল ফিঙ্গার প্রিন্টার ভাংর্চূর করে।এতে প্রায় ১০ লাখ টাকার ক্ষতি সাধন করে। এ সময় দেশীয় অস্ত্রের আঘাতে তথ্য সংগ্রহ কাজে নিয়োজিত মোঃ হুমায়ুন কবীর, মোঃ জুবায়ের ও মোস্তাক মিয়া নামে ৩ কর্মী আহত হয়।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাচন অফিসের অফিস সহকারি কাম কম্পিউটার অপারেটর মোঃ মালম খান বাদী হয়ে মোঃ শহীদুল ইসলাম, মাজু মিয়াসহ ১০জনের নাম উল্লেখ করে ও আরো ২০/২৫ জনকে অজ্ঞাত আসামী করে আশুগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।
এ ব্যাপারে আশুগঞ্জ থানার ওসি মোঃ আবু জাফর জানান, দূর্গাপুর ইউনিয়ন পরিষদে ভোটার তালিকা হাল নাগাদ কেন্দ্রে হামলা চালিয়ে সরকারী সম্পদ ক্ষতি সাধন করার ঘটনায় থানায় মামলা রুজু করা হয়েছে। পুলিশ দোষীদের সনাক্ত করে আটকের চেষ্টা করছে।