স্টাফ রিপোর্টার :

কসবার শ্রমিক লেবাননে নির্মাণ কাজ তদারকি করতে গিয়ে দেয়াল ধসে মো. নজরুল ইসলাম (২৫) নামের এক ব্যক্তি মারা গেছেন। গ্রামের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। লাশটি এক নজর দেখতে দেশে ফেরত পেতে সরকারের কাছে আকুতি জানিয়েছেন নিহতের বৃদ্ধা মাতা। নিহত নজরুল ইসলাম কসবা উপজেলার গোপীনাথপুর ইউনিয়নের গানপুর গ্রামের মৃত আবদুল আউয়াল মিয়ার ছেলে। চার ভাই আর চার বোনের মধ্যে নজরুল ইসলাম সপ্তম।

নিহতের পারিবারিক ও স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ সূত্রে জানা গেছে; নজরুল ইসলাম ২০১৩ সনে চাকুরী করতে লেবাননে যান। সেখানে একটি ইমারত নির্মাণ প্রতিষ্ঠানে সুপার ভাইজার পদে চাকুরী করতেন। একই কোম্পানীতে চাকুরী করেন তাঁর ছোট ভাই মনির হোসেনও। গত বৃহস্পতিবার ওই দেশের সময় বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে লেবাননেরর সিরিয়া সীমান্ত একটি নির্মাণ কাজ তদারকি করতে যান নজরুল ইসলাম। সেখানে নির্মাণাধীন দেয়াল ধসে ঘটনাস্থলে গুরুতর আহত হন তিনি। সংজ্ঞাহীন অবস্থায় তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে বাংলাদেশ সময় রাত ২টার দিকে মারা যান নজরুল ইসলাম। রাতেই তাঁর ছোট ভাই মনির হোসেন বাড়িতে মুঠোফোনে ফোন করে নজরুল ইসলাম মারা যাওয়ার খবর দেয়। ছেলের মৃত্যুর খবর পেয়ে বাড়িতে শোকের ছায়া নেমে আসে।

শনিবার দুপুরে নজরুল ইসলামের গ্রামের বাড়িতে গিয়ে দেখা গেছে এক হৃদয় বিধারক দৃশ্য। বৃদ্ধ মা রাহেলা খাতুন পুত্র শোকে বার বার মুর্ছা যাচ্ছেন। তাঁর মাথায় পানি ঢালা হচ্ছে। তিনি কাঁদতে কাঁদতে বলেন; বৃহস্পতিবার মাগরিবের পর নজরুল আমাকে ফোন করে বলেন মা তুমি কোথায় তোমাকে দেখি না অনেক দিন হয়ে গেছে। তোমাকে দেখতে খুব ইচ্ছা হচ্ছে। আমি কয়েক মাসের মধ্যেই দেশে ছুটিতে বেড়াতে আসব। রাতের মধ্যেই খবর আসে তাঁর ছেলে আর জীবিত নেই।