‘প্রেম করার সময় পাই না’

12 September, 2015 : 12:27 pm ৫৯
ডেস্ক রিপোর্ট : টিভি নাটকের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ও লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার মৌসুমী হামিদ। আঁটসাট বেঁধে চলচ্চিত্রেও পাড়ি জমিয়েছেন তিনি। এখন নাটক ও চলচ্চিত্র দুই মাধ্যমেই নিয়মিত কাজ করছেন এ অভিনেত্রী। এখনকার ব্যস্ততা ও অন্যান্য প্রাসঙ্গিক বিষয়ে কথা বলেছেন মৌসুমী হামিদ।

এখন কি নিয়ে ব্যস্ততা যাচ্ছে?
এ মুহুর্তে টিভি নাটকেই সময় দিচ্ছি। কোরবানির ঈদ উপলক্ষে নির্মাণাধীন বিশেষ নাটক ও টেলিছবিতে অভিনয় করছি। এরই মধ্যে শেষ করলাম শহিদ উন নবী, গৌতক কৈরী, নুজহাত আলভী আহমেদ ও তানিম রহমান অংশুর পরিচালনায় কিছু নাটকের কাজ। আরও কিছু কাজ হাতে রয়েছে।
ধারাবাহিকে অভিনয় করছেন?
এখন কোন ধারাবাহিকে অভিনয় করছি না। ঈদের জন্য বিশেষ নাটক ও টেলিছবিগুলো নিয়েই ব্যস্ত আছি। এর বাইরে আপাতত কোন ধারাবাহিকে কাজ করছি না।
এটিএন বাংলায় প্রচার চলতি ‘সাতটি তারার তিমির’ ধারাবাহিকটির কি অবস্থা?
নাটকটিতে শুরুর দিকে আমি ছিলাম। কিন্তু পরে সরে দাঁড়িয়েছি। এখন ধারাবাহিকে কাজ করা হচ্ছে না।
কারণ কি? কোন ঝামেলা হয়েছে?
না না কোন ঝামেলা নয়। আমি তো চলচ্চিত্রেই বেশি ব্যস্ত। তাই ধারাবাহিকগুলোর কাজ করতে গেলে কিছুটা ঝামেলা হয়ে যায়। আমার সঙ্গে মিমি আপুর কিংবা শুটিং ইউনিটের কোন ঝামেলা হয়নি। চলচ্চিত্রের ব্যস্ততার কারণেই মূলত নাটকটি থেকে সরে দাঁড়ানো। এর বাইরে আর কিছুই নেই। আর নাটকটির কাজ করে বেশ ভালও লেগেছিল। কিন্তু কিছু করার ছিল না।
এখন কাজ চলছে কোন কোন ছবির?
এ মুহুর্তে দুটি ছবির কাজ চলছে। তার মধ্যে একটি হলো ফিরোজ খান প্রিন্স পরিচালিত ‘শোধ প্রতিশোধ’। এতে কাজী মারুফের বিপরীতে অভিনয় করছি আমি। এছাড়া সাফি উদ্দিন সাফির পরিচালনায় ‘পূর্ণদৈর্ঘ্য প্রেম কাহিনী টু’ ছবির কাজ শেষ করেছি। চিত্রনায়ক ইমনের বিপরীতে অভিনয় করা এ ছবিটি আসছে কোরবানির ঈদে মুক্তির কথা রয়েছে।
টিভি নাটক থেকে চলচ্চিত্রে পাড়ি জমিয়েছেন। অভিনয়ের ক্ষেত্রে দুইয়ের মধ্যে কোন পার্থক্য খুঁজে পেয়েছেন?
অবশ্যই অনেক পার্থক্য পেয়েছি। নাটক তো হচ্ছে একটা স্কুলিং। এটি অভিনয় শেখার বড় একটি জায়গা। আর চলচ্চিত্রের ব্যাপারটাই আলাদা। এখানকার কাজটা বড় পরিসরে হয়। এছাড়া বড়পর্দা হলো প্রত্যেক শিল্পীর জন্য একটি স্বপ্নের মাধ্যম।
টিভি মাধ্যমের অভিজ্ঞতাটা চলচ্চিত্রে কতটুকু কাজে লাগাতে পেরেছেন আপনি?
এক্ষেত্রে আমি বলবো শতভাগ কাজে লাগাতে পেরেছি। নিজেকে নিয়ে কখনো মূল্যায়ন করি না। তবুও বলবো যে, অভিনয়টা টিভি নাটকে ভালভাবে রপ্ত করেছি। আর সেটা এখন বড়পর্দায় এসে কাজে লাগাতে পারছি। আশা করছি এটা সবসময় ধরে রাখবো।
এরই মধ্যে তিনটি ছবি মুক্তি পেয়েছে। কেমন সাড়া পেলেন?
খুবই ভাল সাড়া পেয়েছি। ‘ব্ল্যাকমানি’, ‘ব্ল্যাকমেইল’-এর পর ‘জালালের গল্প’ ছবিটি মুক্তি পায়। তিনটি ছবিতেই ব্যাপক প্রশংসা পেয়েছি। সামনের ছবিগুলোতেও যেন এই ধারাবাহিকতা থাকে সেই প্রত্যাশাই করি।
শুটিংয়ের বাইরে ব্যাক্তিগত জীবন কেমন কাটছে?
আমি কাজের ক্ষেত্রে যেমন নিয়ম মেনে চলি তেমনি পরিবারের প্রতিও অনেক যতœশীল। আমার শুটিং ব্যস্ততা শেষ করেই পরিবারের সঙ্গে সময় দিই। বিশেষত ফ্যামিলি আমার কাছে ফার্স্ট প্রায়োরিটি পায়। শুধু তাই নয়, বন্ধু বান্ধবদের কথাও ভুলে যাই না। সবার সঙ্গে যোগাযোগ রাখি। সুযোগ পেলেই আড্ডা দিই বন্ধুদের সঙ্গে। সবমিলিয়ে ব্যাক্তিগত জীবন ভালই যাচ্ছে আমার।
বিয়ে করছেন কবে?
এখনও জানি না। কারণ বিয়ের ব্যাপারটাও উপরওয়ালার হাতে। তিনি যখন লিখে রেখেছেন তখনই বিয়ে হবে। এ নিয়ে আমার নিজস্ব কোন পরিকল্পনা নেই।
পরিবার থেকে বিয়ের কথা বলছে না?
হ্যাঁ, সেটা তো প্রতিনিয়তই বলেন সবাই। কিন্তু আমিই এই মুহুর্তে ক্যারিয়ারটাকে প্রাধান্য দিচ্ছি। আগে ক্যারিয়ার গুছিয়ে নিই তারপর বিয়ে।
নিজের কোন পছন্দ আছে? মানে প্রেম করছেন?
না, আমি নিজের কাজের ব্যাপরে অনেক বেশি ডেডিকেটেড। এছাড়া নিজের পছন্দ কিংবা কারো সঙ্গে প্রেম করার সময়টা তো পেতে হবে।

[gs-fb-comments]