আমাদের কথা ডেস্ক :

জল্পনা অনেকটাই মিলে গেল। প্রকাশিত হলো অ্যাপল ওয়াচ, আইফোন, অ্যাপল টিভি এবং আইপ্যাডের নতুন সংস্করণ। পাশাপাশি আত্মপ্রকাশ করল অ্যাপল পেন্সিল। জবসের অনুপস্থিতিতেও বজায় থাকল তার জাদু।
এবার অ্যাপল সবচেয়ে বেশি জোর দিয়েছে তিনটি জিনিসের উপরে। প্রথম, আইপ্যাডের হারানো গরিমা ফিরে পাওয়া। দ্বিতীয়, স্পর্শ-প্রযুক্তির নতুন দিগন্ত খুলে দেওয়া। তৃতীয়, টিভির দুনিয়াকে নতুনভাবে ভাবা। তিনটি নিয়েই প্রাথমিকভাবে প্রতিক্রিয়া বেশ ভালো।
বেশ কিছু দিন ধরেই আইপ্যাডের বিক্রি অ্যাপলকে দুশ্চিন্তায় রেখেছিল। আইফোন ৬ প্লাস আসার পরে সন্দেহ হয়েছিল আইপ্যাড হয়তো তুলেই নেবে অ্যাপল। কিন্তু ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য আইপডকে ঢেলে সাজল অ্যাপল। নিয়ে এল ‘আইপ্যাড প্রো’। আইপ্যাড আর ম্যাকের মাঝামাঝি পুরোপুরি ল্যামিনেটেড ১২.৯ ইঞ্চির অ্যান্টি-রিফ্লেকটিভ রেটিনা ডিসপ্লে সমৃদ্ধ এই ‘আইপ্যাড প্রো’-এ শুধু সিনেমা দেখা, গেম খেলা, বই পড়ার দুর্দান্ত অভিজ্ঞতাই হবে না ডেক্সটপ বা ল্যাপটপের অনেক কাজই অনায়াসে করা যাবে। এর স্ক্রিনে আঙুলের ছাপ পড়া বন্ধ করতে অলেওফোবিক কোটিং থাকবে। কুক-এর কথায়, ‘‘এখনও পর্যন্ত সব চেয়ে বড়, আধুনিক ও স্মার্ট আইপ্যাড।’’ জল্পনা মিলিয়ে এতে থাকছে ৬৪ বিটের এ-৯এক্স চিপ এবং এম৯ মোশন কম্প্রেসর।
‘আইপ্যাড প্রো’-এর চার দিকে চারটি স্পিকার থাকছে। এতই স্মার্ট এই স্পিকার যে আপনি কী ভাবে আইপ্যাডটি ধরে আছেন সে মতো বাজবে। আর ইন্টারনেট সংযোগের জন্য এলটিই ব্যবস্থা থাকবে।
এই নতুন আইপ্যাডের সঙ্গেই এল নতুন অ্যাকসেসরিজ ‘অ্যাপল পেনসিল’। এটি কাজও করবে পেনসিলের মতোই। সুরু-মোটা দাগ, দাগের সূক্ষ্ম মোচড়, শেড দেওয়া সবই হবে। এই কাজে পেনসিলের সঙ্গে তালমিল করবে আইপ্যাডের অতিসংবেদনশীল সেন্সর। ১৫ সেকেন্ড চার্জ দিলে চলবে প্রায় আধ ঘণ্টার মতো। পিছনের ঢাকনা খুলে আইপ্যাডে সঙ্গে জুড়েই চার্জ দেওয়া যাবে। এসেছে নতুন বড় কি-বোর্ডে। নতুন আইপ্যাডের তিনটি চুম্বকীয় ডট রয়েছে। যার সঙ্গে জুড়ে যাবে এই কি-বোর্ড। তার পরে ল্যাপটপের মতো কাজ করতে পারবেন। সব মিলিয়ে পেশাদারি কাজের জন্য বেশ উপযুক্ত এই আইপ্যাড। তাই মঞ্চে এই আইপ্যাডের নিজেদের অ্যাপের কাজ কী ভাবে হবে তা উপস্থান করলেন মাইক্রোসফট, অ্যাডব-এর মতো সংস্থার কর্মকর্তারা।
অ্যাপলের দ্বিতীয় জাদু স্পর্শ-প্রযুক্তি সংক্রান্ত। জল্পনা ছিল ‘ফোর্স টাচ্’ প্রযুক্তি ব্যবহার করতে পারে অ্যাপল। করলও তাই। আইফোনের নতুন সংস্করণে এই প্রযুক্তির নাম দিল ‘থ্রিডি টাচ’। এ বার শুধু আঙুলের চলাচল নয়, আঙুলের চাপের সূক্ষ্ম পরিবর্তন বুঝতে পারবে আইফোনের অতিসংবেদনশীল সেন্সর। বারবার ছোঁয়ার বদলে একটু কম-বেশি চাপ দিয়েই অনেক কাজ করা যাবে। যেমন, নতুন মেল এলে নোটিফিকেশনটা একটু চেপে থাকুন, খুলে যাবে। বন্ধু কোনও একদিন আসবে বলে জানিয়েছে। এসএমএসে তারিখটির উপরে চেপে থাকুন আপনার ক্যালেন্ডার খুলে যাবে। দেখে নিন সে দিন কোনও কাজ আছে কি না। একই সঙ্গে আইফোন ৬ এস আইফোন ৬ এস প্লাস-এ এল ৬৪ বিটের এ৯ চিপ এবং এম৯ মোশন কম্প্রেসর। বাড়ল ক্যামেরার ক্ষমতা। ১২ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরায় স্টিল ছবিই তুলতে তুলতে আঙুলের চাপে হয়ে উঠবে সচল। ভিডিও তোলা যাবে ৪-কে রেজলিউশনে। সামনের ক্যামেরা পাঁচ মেগাপিক্সেলের। ফেসটাইম ব্যবহার করে নিজস্বী তুলুন ইচ্ছেমতো। এলটিই এবং ওয়াই-ফাই-এর ক্ষমতাও বাড়ানো হয়েছে। জল্পনা মিলিয়ে ভিডিও রেকর্ডিং-এ প্যানোরামার ব্যবহার, সেøা-মোর ক্ষমতা বৃদ্ধি পেয়েছে। আকার একই থাকলেও এবার চার রঙে মিলবে আইফোন।
বেশ কয়েক বছর ধরের টিভির জগতে বিশেষ কিছু করেনি অ্যাপল। সেট-টপ বক্স ‘অ্যাপল টিভি’কে নিয়ে এ বার তাই নানা জল্পনা ছিল। জল্পনাকে সত্য করে মঞ্চে কুক জানালেন, টিভির ভবিষ্যত ‘অ্যাপ’। সেই অ্যাপ ব্যবহারের জন্য জল্পনা মিলিয়ে নিয়ে এলেন নতুন টাচপ্যাড রিমোট। যাতে অ্যাপলের ‘সিরি’র জন্য রয়েছে বিশেষ বোতাম। সিরি কাজ করবে ব্যবহারকারীর কথামতো। অমুকের সিনেমা, তমুক সিরিয়াল, কোনো নির্দিষ্ট এপিসোড, টিভির অনুষ্ঠান- আপনি শুধু নির্দেশ দিন, এক নিমিষে খুঁজে দেবে। কোনও সিরিয়ালকে এগিয়ে-পিছিয়ে, কোনও জায়গা তর্জমা করে দেখার সুযোগও দেবে সিরি। পাশাপাশি এর জন্য আলাদা সফটঅয়্যারও তৈরি করছে অ্যাপল। পাশাপাশি অন্যসংস্থাকে এই টিভির জন্য অ্যাপস তৈরির আহ্বানও করেছে অ্যাপল। পাশাপাশি টাচপ্যাডের রিমোটে আঙুল বুলিয়েও সেরে ফেলা যাবে অনেক কাজ। সেট-টপ বক্সে ডুয়েল কোর এ৮ চিপ ব্যবহার করেছে অ্যাপল। সঙ্গে ৭.১ ডলবি ডিজিট্যাল শব্দ শোনার ব্যবস্থাও থাকছে।
অ্যাপল ওয়াচেও বেশ কিছু পরিবর্তন, সুবিধা এনেছে অ্যাপল। বেশ কয়েকটি নতুন ধরনের অ্যাপল ওয়াচ এসেছে। এসেছে নানা রঙের বেল্টও। করে বেশ কিছু নতুন অ্যাপস এসেছে। যেমন সারা দিনে আপনি কেমন সক্রিয় আছেন তা জানিয়ে দেবে অ্যাকটিভিটি অ্যাপস। হাতে অ্যাপল ওয়াচ থাকলে আপনি কত ক্ষণ দাঁড়িয়ে আছেন, কটা সিঁড়ি চড়লেন, কত ক্ষণ ব্যায়াম করলেন, কত ক্যালোরি পুড়ল সবই জানিয়ে দেবে অ্যাকটিভিট অ্যাপস। আই ট্রান্সলেটার ব্যবহার করে অন্যের কথা নিজের ভাষায় অনুবাদ করিয়ে নিন। পান উপগ্রহ মানচিত্র। ফেসবুক মেসেঞ্জারে চ্যাট করুন। অ্যাপল ওয়াচ হাতে বাঁধলে আপনার রক্তচাপ, শর্করা, হৃদ্স্পন্দন, ফুটে উঠবে খুদে স্ক্রিনে। ফলে বাড়ি বসেই ডাক্তার দেখাতে পারবেন। এমনকী প্রসূতি তার ভ্রূণের হৃদ্স্পন্দন পর্যন্ত শুনতে পাবেন। পাশাপাশি ঘড়ির জন্য নতুন সফটঅয়্যারও নিয়ে এসেছে অ্যাপল। পাশাপাশি শুধু ঘড়ির কথা ভেবেই আরও অ্যাপস তৈরি হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে অ্যাপল।