‘ইউপি নির্বাচন দলীয় ব্যানারে করার চিন্তা চলছে’

20 September, 2015 : 8:42 am ৭৯

আমাদের কথা ডেস্ক :

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সাবেক সংসদ সদস্য কাজী জাফরউল্লাহ বলেছেন, আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন দলীয় ব্যানারে করার জন্য ভাবছে সরকার। এ ব্যাপারে কিছুটা আইনগত জটিলতা রয়েছে, আইন সংশোধন করে এ জটিলতা দূর করা হবে। তিনি বলেন, ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা নৌকা প্রতীক নিয়েই নির্বাচন করবেন। এজন্য সকল দেশপ্রেমী জনগণকে তৃনমূল থেকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বকে শক্তিশালী করতে হবে। শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে ফরিদপুরের সদরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় এসব কথা বলেন তিনি।
গাজী মোঃ করিমের সভাপতিত্বে বর্ধিত সভায় বক্তব্য দেন ফরিদপুর অঞ্চলের সংরক্ষিত নারী সংসদ সদস্য স্থপতি নিলুফার জাফরউল্লাহ, সদরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী শফিকুর রহমান, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সহ সম্পাদক ও সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ আনিসুর রহমান খান প্রমুখ। এদিকে ঈদের শুভেচ্ছা হিসেবে ভাঙ্গা উপজেলার তিনশ’ আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীর মাঝে ফ্রিজ ও রঙিন টিভি উপহার দিয়েছেন কাজী জাফরউল্লাহ। উপহারের মধ্যে ছিল আরএফএল কোম্পানির ২০০ রঙিন টিভি ও ১০০ ফ্রিজ।  শনিবার সকালে ভাঙ্গা পৌরসভা মিলনায়তনে পৌরসভাসহ ভাঙ্গার ৬টি ইউনিয়নের দেড়শ’ নেতাকর্মীর হাতে উপহার সামগ্রী হিসেবে একশ’টি টিভি ও ৫০টি ফ্রিজ এ তুলে দেন তিনি। এ সময় তার সহধর্মিনী ও সংরক্ষিত মহিলা আসনের সাংসদ নিলুফার জাফরউল্লাহ উপস্থিত ছিলেন।
শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) কাউলীবেড়া ইউনিয়নের কাউলীবেড়া গ্রামের নিজ বাড়িতে অন্য ৬টি ইউনিয়নের দেড়শ’ নেতাকর্মীর মাঝে রঙিন টেলিভিশন ও ফ্রিজ বিতরণ করেন এই নেতা। শনিবার পৌর মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে কাজী জাফরউল্লাহ বলেন,  দলের ত্যাগী ও পরীক্ষিত তৃণমূল নেতাকর্মীদেরকে  ঈদের শুভেচ্ছা হিসেবে এ উপহার দেওয়া হল। আগামীতে পর্যায়ক্রমে অন্যান্য নেতাকর্মীদেরও মূল্যায়ন করা হবে।
নেতার কাছ থেকে ফ্রিজ পেয়ে খুশি ঘারুয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি তৈয়ব আলী। তিনি বলেন, নেতা আমাকে একজন্য ত্যাগী ও নিবেদিতপ্রাণ কর্মী হিসেবে মূল্যায়ন করেছেন, এতে আমি খুশি। তাছাড়া এ ঘটনায় রাজনীতিতে একটা নতুন মাত্রা যুক্ত হলো।
উপহার হিসেবে একটি রঙিন টেলিভিশন পেয়ে খুশি ভাঙ্গা পৌর এলাকার হোগলাডাঙ্গি-সদরদী এলাকার প্রবীণ আওয়ামী লীগ কর্মী সার্জেন্ট (অব.) আনোয়ার হোসেন মুন্সীও। তিনি বলেন, নেতা আমার কাজের মূল্যায়ন করেছেন, আমি ধন্য হলাম।

[gs-fb-comments]