আমাদের কথা ডেস্ক :

নতুন মৌসুমে লা লিগার চার ম্যাচ আর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের একটি ম্যাচ খেলেছে দুটি টুর্নামেন্টের গতবারের চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনা। লা লিগার প্রথম দুইটি ম্যাচে কাতালানদের হয়ে গোলবারের নিচে দায়িত্ব পালন করেন চিলির ক্লদিও ব্রাভো। তবে, পরের দুটি লা লিগার ম্যাচে ব্রাভোর পরিবর্তে সে দায়িত্ব পালন করেন আরেক গোলরক্ষক জার্মানির টার স্টেগেন। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের একমাত্র ম্যাচে রোমার বিপক্ষেও ছিলেন টার স্টেগেন। নতুন মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচে এগিয়ে থেকেও জয় হাতছাড়া করে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন বার্সা। ম্যাচের ২১ মিনিটে লুইস সুয়ারেজের গোলে এগিয়ে থাকা কাতালানরা খেলার ৩১ মিনিটে গোল হজম করে। আর এর পুরো দোষটি দেওয়া যায় গোলরক্ষক টার স্টেগেনকে। বার্সা গোলরক্ষককে নিজের মার্ক ছেড়ে অনেকটা এগিয়ে থাকতে দেখে প্রায় মাঝমাঠ থেকে শট নেন রোমার ফ্লোরেঞ্জি। আর তাতে বল জড়িয়ে যায় ফাঁকা থাকা কাতালানদের গোলপোস্টে। বার্সা কোচ লুইস এনরিক লা লিগার প্রথম দুই ম্যাচে শুরুর একাদশে মাঠে নামান গোলরক্ষক ব্রাভোকে। অ্যাতলেতিকো বিলবাওয়ের বিপক্ষে নিজেদের প্রথম ম্যাচে সুয়ারেজের একমাত্র গোলে ১-০তে জয় পায় কাতালানরা। দ্বিতীয় ম্যাচেও মাঠে নামেন ব্রাভো। কোনো গোল হজম না করে বার্সার থমাস ভারমালেনের একমাত্র গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। তবে, লা লিগায় নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে টার স্টেগেনকে মাঠে নামান এনরিক। আর সে ম্যাচে ফার্নান্দো তোরেস ম্যাচের ৫১ মিনিটে গোল করে দলকে এগিয়ে নেন। তবে, ম্যাচের ৫৫ মিনিটে নেইমার আর ৭৭ মিনিটে মেসির গোলে পয়েন্ট হারানোর হাত থেকে বেঁচে যায় বার্সা।
মাঝে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচ খেলার পর লা লিগায় নিজেদের চতুর্থ ম্যাচেও মাঠে নামেন স্টেগেন। এ ম্যাচে প্রতিপক্ষ লেভান্তের বিপক্ষে ৪-১ গোলের জয় পায় কাতালানরা। কিন্তু, স্টেগেনের ভুলের মাশুল দিতে গিয়ে রোমার বিপক্ষে জয় না পাওয়া বার্সা লেভান্তের বিপক্ষে একটি গোল হজম করে। আর তাতেও দোষী সাব্যস্ত করা যায় স্টেগেনকে। ম্যাচের ৬৬ মিনিটের মাথায় বামপাশ থেকে লেভান্তের ফুটবলার ভারজা বল তুলে মেরে দিক পরিবর্তনের চেষ্টা করেন। যদিও বার্সার ডিফেন্ডাররা বল ক্লিয়ার করার জন্য নিজেদের ডি-বক্সে অবস্থান নেন, তারপরও স্টেগেন এগিয়ে এসে বল ক্লিয়ার করার চেষ্টা করেন। তাতে ব্যর্থও হন তিনি। তার নাগালের বাইরে দিয়ে চলে যায় বল। আর তা থেকে শট নেন ভিক্টর। ফলে, ফাঁকা থাকা কাতালানদের গোলপোস্টে জড়িয়ে যায় বল।
এতগুলো ম্যাচের ঘটনার পরও নিজেকে নিদোর্ষ দাবি করছেন টার স্টেগেন। এ প্রসঙ্গে বার্সা গোলরক্ষক বলেন, লেভান্তের বিপক্ষে গোলটি হয়েছে ডিফেন্ডারদের বিভ্রান্তির কারণে। আমি রোমার বিপক্ষে ম্যাচটি নিয়েও ভাবছি না, দলে জায়গা নিয়েও ভাবছি না।
সংবাদমাধ্যমকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে স্টেগেন আরও যোগ করেন, ভুল নিয়ে আমার কোনো মাথা ব্যাথা নেই। এগুলো আপনাদের (সংবাদ কর্মী) মাথা ব্যাথার কারণ হতে পারে। আপনারাই এগুলো নিয়ে বেশি করে আলোচনা করুন, চিন্তা করুন আর কথা বলুন। আমি এভাবেই খেলে যাব। এটাই আমার খেলার ধরন। আর কেনোই বা আমি খেলার ধরন পরিবর্তন করবো? যেহেতু সবকিছু ঠিক মতোই চলছে।