সরাইলসহ সারা দেশে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১৩

23 September, 2015 : 9:53 am ১৪
ছবি : সরাইলে খাড়ে পড়া বাসটি।

প্রবীর চৌধুরী রিপন :
ঈদের ছুটি শুরু হতে না হতেই সড়ক দুর্ঘটনায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলাসহ সারা দেশে ১৩ জন নিহত হয়েছেন। এ দুর্ঘটনাগুলোয় সরাইল উপজেলায় বাস চাপায় ৩ জন পথচারীসহ বরগুনায় মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রও নিহত হয়েছেন। এছাড়া  সুনামগঞ্জে ৪, টাঙ্গাইল ২, বরগুনায় ২ জন ও চট্টগ্রামে ২ জন নিহত হয়েছেন।
জানা যায়, ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে বুধবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলের ইসলামাবাদ নামক স্থানে যাত্রীবাহী   বাস চাপায় তিন পথচারী মহিলা নিহত হয়েছে এবং কমপক্ষে ১৫ বাস যাত্রী আহত হয়েছে। জানা যায়, দুপুর সোয়া একটার দিকে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা সুনামগঞ্জগামী এনা পরিবহনের একটি বাস নিয়ন্ত্রন হারিয়ে খাদে পড়ার সময় পথচারী তিন মহিলাকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু হয়। বাসটি খাদে পড়ে ১৫ যাত্রী আহত হয়েছে। নিহতদের মধ্যে গোগদ গ্রামের শামসুন্নাহার বেগম (৪২), আজিজা বেগম (৬০) ও আফিয়া খাতুন (৪৫)। সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলী আরশাদ জানান, দুপুরে সুনামগঞ্জ অভিমুখী এনা পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী নিয়ন্ত্রন হারিয়ে খাদে পরার সময় বাসের চাপায়  তিন পথচারী মহিলা নিহত হয় এবং বাসটি খাদে পড়ে অন্তত ১৫ যাত্রী আহত হয়। রেকার এনে বাসটি উদ্ধার কাজ শুরু হয়েছে।

এছাড়া সুনামগঞ্জের ছাতক-গোবিন্দগঞ্জ সড়কের হাসনাবাদ এলাকায় কাভার্ড ভ্যান চাপায় নারীসহ সিএনজিচালিত অটোরিকশার ৪ যাত্রী নিহত হয়েছেন। ছাতক থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশেক সুজা মামুন সাংবাদিকদেরকে এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, সিলেট থেকে ছাতকগামী একটি কাভার্ড ভ্যান বিপরীত দিক থেকে আসা সিএনজিচালিত একটি অটোরিকশাকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই চারজন নিহত হন। প্রাথমিকভাবে নিহতদের নাম-পরিচয় জানাতে পারেননি ওসি।
বরগুনা জেলার আমতলী-পটুয়াখলী সড়কে চুনাখালী এলাকায় পিকআপ ভ্যান ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে ২ জন নিহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) উজ্জল কুমার সহদেব (২৪) ও মোটরসাইকেল আরোহী মনির সিকদার (৩২)। এ ঘটনায় আশঙ্কাজনক অবস্থায় একজনকে পটুয়াখালী মেডিকেল হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পুলক চন্দ্র রায় সাংবাদিকদেরকে এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
অন্যদিকে ঢাকা-টাঙ্গাইল বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের সদর উপজেলার ঘারিন্দা ইউনিয়নের কান্দিলা এলাকায় যাত্রীবাহী বাস ও লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে ২ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় তিন জন আহত হয়েছেন। আহতদের উদ্ধার করে টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাৎক্ষণিক হতাহতদের নামপরিচয় জানা যায়নি। হাইওয়ে এলেঙ্গা পুলিশ ফাঁড়ির সার্জেন্ট কামরুজ্জামান রাজ সাংবাদিকদেরকে জানান, সকালে ঢাকা থেকে রংপুরগামী খালেক পরিবহনের যাত্রীবাহী বাস ঘটনাস্থলে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা ওই লেগুনাটির সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ওই লেগুনার ৫ যাত্রী আহত। আহতদের মধ্যে ৫ জনকে টাঙ্গাইল মেডিকেল হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে ২ জনকে মৃত ঘোষণা করেন দায়িত্বর চিকিৎসক।
এদিকে চট্টগ্রাম নগরীর ডবলমুরিং থানার দেওয়ানহাট এলাকায় বাসচাপায় দুই পথচারী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো পাঁচজন। নিহতরা হলেন- নোয়াখালী জেলার রামগতি থানার আজিজ বেপারির ছেলে মোহাম্মদ নাঈম (২০)। কুমিল্লা মুরাদনগর  এলাকার সুন্দর আলীন ছেলে জয়নাল ও লক্ষ্মীপুর কমলনগর এলাকার মোহাম্মদ মিজান। আহতরা হলেন- রূপালি ব্যাংক আগ্রাবাদ শাখার কর্মকর্তা মোহাম্মদ মহিউদ্দিন (৩০), হালিশহর এলাকার ইব্রাহিম খলিল (৪০), মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর (২৫), নুর মোহাম্মদ (৫৫)। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, নগরীর ১০ নম্বর রুটের একটি বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি টেম্পু, দুটি রিকসা ও পথচারীদের চাপা দেয়। ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে ৭জনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ  (চমেক) হাসপাতালে নেওয়া হলে দায়িত্বরত চিকিৎসক ২জনকে মৃত ঘোষণা করেন। বেলা সাড়ে ১২টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় জয়নালের মৃত্যু হয়। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ পুলিশ ফাঁড়ির এসএসআই পঙ্কজ বড়ুয়া সাংবাদিকদেরকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

[gs-fb-comments]