স্টাফ রিপোর্টার :
বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সকালে কসবা উপজেলার গোপীনাথপুর ইউনিয়নের জগন্নাথপুর আমতলি গ্রামের ১২ বছরের ছেলের সামনে তার মা রেজিয়া বেগমকে গলা কেটে হত্যা মামলার প্রধান আসামী একই গ্রামের আবদুল আলিমের পুত্র মো. আল আমিন (৩০) ব্রা‏‏হ্মণবাড়িয়া চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেটের আদালতে ১৬৪ ধারায় ঘটনার সাথে জড়িত থাকার স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দী দিয়েছে। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, মুরগি চুরির ঘটনাকে কেন্দ্র করে পরিকল্পিত ভাবে গত শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) গভীর রাতে আল আমিনের নেতৃত্বে একটি সংগবদ্ধ দল শাহআলম মিয়ার ঘরে ঢুকে শিশু সন্তান মাশুক ভূইয়া ও তার স্ত্রী রেজিয়া বেগমকে হাত পা বেঁধে শিশু সন্তানের সামনেই মাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে গলা কেটে হত্যা করে। শিশুর আর্তচিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে ঘটনার সাথে জড়িতদের চিনেছে বলে সে জানায়।
অফিসার ইনচার্জ কসবা  থানা  মো. মহিউদ্দিন জানান, হত্যা মামলার আসামী মো. আল আমিনকে ৩ দিনের রিমান্ডে আনা হলে প্রথম দিনেই ঘটনা সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সকালে ব্রা‏হ্মণবাড়িয়া চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেটের আদালতে স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দী প্রদান করেছে।