স্টাফ রিপোর্টার :
সৌদি আরবে হজের আনুষ্ঠানিকতার মধ্যে মিনায় শয়তানের স্তম্ভে পাথর ছুড়তে গিয়ে পদদলিতের ঘটনায় নিখোঁজ নাসিরনগর উপজেলার ভলাকুট ইউনিয়নের বালিখোলা গ্রামের আরো দু’জন মারা গেছেন বলে পারিবারিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। নিহতরা হলেন, মৃত মো. সাইজ উদ্দিনের ছেলে হাজী মো. আসাদুল্লাহ (৭৫) যার পাসপোর্ট নম্বর-বি-০৪৮৫৩৮৫ ও তার ছোট বোন আউলিয়া বেগমের স্বামী একই এলাকার মৃত মো. এলাজ উদ্দিনের ছেলে মো. সিদ্দিক মিয়া (৬৫), যার পাসপোর্ট নম্বর-বি-০৪৬৭৩০৯।
এর আগে আসাদুল্লাহ্’র আপন বোন আমেনা বেগম ও চাচাতো বোন হাসেনা বেগম মারা যান। এখনো নিখোঁজ রয়েছেন আসাদুল্লাহ’র স্ত্রী সায়েরা বেগম ও মামা মো. ওমর আলী। এ ঘটনায় পরিবারটিতে এখন শোকের মাতম।
ভলাকুট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এস.এম বাকি বিল্লাহ জুয়েল ও আসাদুল্লাহ’র মেয়ে জামাই মো. দেলোয়ার হোসেন জানান, বৃহস্পতিবারের ঘটনায় আরো দু’জনের মৃত্যুর খবর তাঁরা নিশ্চিত হয়েছেন। নিখোঁজ দু’জনের সন্ধান গতকাল বুধবার পর্যন্ত মেলেনি। গত ৩০ আগস্ট তাঁরা একসঙ্গে হজ পালনে সৌদি আরবে গিয়েছিলেন। গত ২৪ সেপ্টেম্বর সৌদি আরবের মিনায় ‘শয়তান স্তম্ভে’ পাথর ছোড়ার সময় পদদলিত হওয়ার সময় এই আটজন একই সাথে ছিলেন। মিনায় পদদলিত হওয়ার ঘটনার সময় আসাদুল্লাহর চাচাতো ভাই সায়েব আলী ও চাচী আলিমুন্নেছা কোন রকমে প্রানে বেঁচে যান।