স্টাফ রিপোর্টার :
আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়কমন্ত্রী এডভোকেট আনিসুল হক বলেন, দেশ এখন তথ্য প্রযুক্তিতে অনেকদূর এগিয়ে গেছে। তিনি উপস্থিত সুধীজনের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা হচ্ছেন সরকারের মুখপাত্র। আমি এ পর্যন্ত ১৩৬ জনকে বিভিন্ন বিভাগে চাকুরী দিয়েছি তবে চাকুরী প্রার্থীদের এক টাকাও খরচ করতে হয়নি। কিন্তু দু:খের সাথে বলতে হচ্ছে আমার নাম ভাঙ্গিয়ে একটি মহল চাকুরী দেয়ার অজুহাতে দুই জনের নিকট থেকে আট লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। আমি আপনাদের সামনে স্পষ্টভাবে বলতে চাই চাকুরী দেয়ার নামে কোন টাকা নেয়া হয় তাহলে অবশ্যই তাকে শ্রীঘরে যেতে হবে। এ ব্যাপারে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। পরে তিনি পৌর এলাকার শীতলপাড়া গ্রামের বিদ্যুৎ সংযোগ উদ্বোধন করেন। আইনমন্ত্রী শুক্রবার বিকেলে কসবা উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত ২ দিনব্যাপী উপজেলা উন্নয়ন মেলা এবং ডিজিটাল ও ইন্টানেট সপ্তাহের সমাপনী ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন। উপজেলা অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাম্মদ আরিফুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন: উপজেলা চেয়ারম্যান এডভোকেট মো. আনিছুল হক ভূইয়া, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহীন সুলতানা, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বিলকিছ বেগম, ব্রাহ্মণবাড়িয়া পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার আব্দুল ওয়ারিদ, আইনমন্ত্রীর সহকারি একান্ত সচিব এডভোকেট রাশেদুল কাওসার ভূইয়া জীবন, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. কবির হোসেন, কসবা মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ অধ্যক্ষ মো. তসলিম মিয়া, উপজেলা আওয়ামীলীগ যুগ্ন আহবায়ক এমজি হাক্কানী ও উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মো. এমরান উদ্দিন জুয়েল। উপজেলা উন্নয়ন ও ডিজিটাল মেলায় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ৪০টি ষ্টল অংশগ্রহণ করেছে। তন্মধ্যে সরকারি দপ্তরে মধ্যে প্রথম হয়েছে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ,  দ্বিতীয় হয়েছে উপজেলা শিক্ষা অফিস ও তৃতীয় হয়েছে উপজেলা কৃষি অফিস। অপরদিকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পর্যায়ে প্রথম হয়েছে কসবা পৌর উচ্চ বিদ্যালয়, দ্বিতীয় হয়েছে খাড়েরা মুহাম্মদীয়া উচ্চ বিদ্যালয় ও তৃতীয় হয়েছে মেহারী ওবায়দীয়া সিনিয়র মাদ্রাসা।
উল্লেখ্য উপজেলা উন্নয়ন এবং ডিজিটাল মেলা ও ইন্টারনেট সপ্তাহ কসবা মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয়।