নিজস্ব প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জেলা  মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের গতকাল মঙ্গলবার সারাদিন ব্যাপি পৃথক পৃথক সাঁড়াশি অভিযানে ৪৬০পিছ ইয়াবা ট্যাবলেটসহ ২০কেজি গাঁজা উদ্ধার করেছে । এসময় এসব অভিযানে ৫ জন মাদক কারবারিকে আটক করা হয়েছে। এরা হলেন পৌরশহরের উওর পৈরতলা গ্রামে মৃত: লাল মিয়ার ছেলে সুলাইমান মিয়া (৩৫) মো. মাশুক মিয়া ছেলে মো. আরিফ (২৮) মৃত: কামাল মিয়ার ছেলে মো. হৃদয় (২০) পৌর শহরের কাউতলী গ্রামের শেখ মো. গাজী মিয়ার ছেলে মামুন প্রকাশ জয় মামুন (২৩) এছাড়া সদর উপজেলার আদমপুর গ্রামের মো. খোরশেদ মিয়ার ছেলে মো. বিল্লাল মিয়া (২৩)। জেলা মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিদর্শক দেওয়ান মোহম্মদ জিল্লুর রহমান জানান, গোপন সংবাদের ভিওিতে পৃথক পৃথক সাড়াঁশি অভিযানে দুপুর ৩টার দিকে পৌর শহরের (দ:) পৈরতলা খাঁ বাড়ি মসজিদের সামনের রাস্তা থেকে ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা থেকে তল্লাশি চালিয়ে সু-কৌশলে রাখা ২০ কেজি গাঁজা উদ্ধার করি। এসময় মাদক পাচার ও ব্যবসার সাথে জড়িত থাকার দায়ে আরিফ, হৃদয় ও বিল্লাল মিয়াকে আটক করি। সন্ধ্যা ৬টার দিকে পৌর শহরের উওর পৈরতলার উচা ব্রিজের কাছ থেকে বিশেষ কৌশলে তার শরীরে লুকিয়ে রাখা ৩০০পিছ ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করি। আরেক অভিযানে রাত ৮টার দিকে পৌর শহরের টিএ রোড আশিক প্লাজার সামনে থেকে জয়মামুনকে ১৬০ পিছ ইয়াবাসহ উদ্ধার করি। আটকৃত মালের বাজার মূল্য আনুমানিক (৬,৫০,০০০) টাকার মত। তাদের বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় পৃথকভাবে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলার প্রক্রিয়া চলছে। এছাড়া আটকৃত গাঁজার মূল মালিক আখাউড়া রাজাপুর গ্রামের মো. আন্টু মিয়ার স্ত্রী শোভা আক্তার (৩৫) কে মামলার আসামী করা হয়েছে। আমাদের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।