ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ায় নিষ্ঠুর সন্তানদের কারণে গোয়াল ঘরে শিয়ালের কামড়ে মারাত্মক আহত সেই শতবর্ষী বৃদ্ধা মাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার আজীবন চিকিৎসা ও ভরণপোষণের দায়িত্ব নিয়েছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ মোসলেম উদ্দিন অ্যাডভোকেট। সাহায্যে এগিয়ে আসছেন আরো অনেকেই।

এরই মধ্যে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় একটি বয়স্ক ভাতার কার্ড প্রদান করা হয়েছে। স্থানীয় সংসদ সদস্য ইউএনওসহ বিভিন্ন পর্যায় থেকে ১৫ হাজার টাকার মতো নগদ অর্থসহায়তা করা হয়েছে।

ফুলবাড়ীয়া উপজেলার পুটিজানা ইউনিয়নের তেজপাটুলী গ্রামের ওই বৃদ্ধা মাকে নিষ্ঠুর সন্তানরা গোয়াল ঘরে ফেলে রাখায় গত বুধবার রাতে ৩/৪টি শিয়াল তাকে কামড়িয়ে ক্ষত-বিক্ষত করে। এ নিয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হলে আজ সোমবার সকালে অসহায় বৃদ্ধা মা মরিয়মের কাছে ছুটে যান উপজেলা নির্বাহী অফিসার লীরা তরফদার, সমাজকল্যাণের উপ-পরিচালক আমিরুল ইসলাম। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সহায়তায় শিয়ালের কামড়ে আহত বৃদ্ধা মাকে প্রথমে ফুলবাড়ীয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

খবর হাসপাতালে ছুটে যান স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ মোসলেম উদ্দিন অ্যাডভোকেট, তিনি অসহায় বৃদ্ধা মহিলার আজীবনের চিকিৎসা ও ভরণপোষণের দায়িত্ব নেন।

অপরদিকে বিরোধী দলীয় নেত্রী বেগম রওশন এরশাদ এমপি শিয়ালের কামড়ে আহত বৃদ্ধা মহিলার আজীবনের দায়িত্ব নেয়ার জন্য মুক্তাগাছার এমপি সালাউদ্দিন মুক্তিকে ঘটনাস্থলে পাঠান। সালাউদ্দিন মুক্তি জানান, বিরোধী দলীয় নেত্রী বেগম রওশন এরশাদ এমপি শিয়ালের কামড়ে আহত অসহায় বৃদ্ধা মায়ের আজীবনের দায়িত্ব নেয়ার জন্য আমাকে পাঠিয়েছেন। স্থানীয় এমপি বৃদ্ধা মহিলার আজীবনের দায়িত্ব নিয়ে গেছেন। তারপরও এ বৃদ্ধা মহিলার প্রতি সহায়তার কোনো কমতি থাকবে না।

স্থানীয় চেয়ারম্যান ময়েজ উদ্দিন তরফদার জানান, গতকালও বৃদ্ধা মহিলা স্পষ্ট কথা বলেছে। আজকে একটু বেশি অসুস্থতাবোধ করছেন। রোববার শিয়ালের কামড়ের ভ্যাকসিন দেয়া হয়েছে।