টিডিএন বাংলা ডেস্ক : ভারতে মহিলাদের উপর দিনের পর দিন যৌন নিপীড়ন বেড়ে যাওয়ার ঘটনায় চিন্তিত জগদগুরু মাতা মহাদেবী মন্ত্যব্য করেন যে, মেয়েদের উত্তেজক পোশাক পরা উচিৎ নয় এবং তাদের বেশী রাত পর্যন্ত বাইরে থাকাও সমীচীন নয়। তিনি বলেন যে, “আরব দেশের মহিলাদের মতো আমাদের দেশের মেয়েদের ক্ষেত্রেও আরবের পোশাক প্রযোজ্য হওয়া উচিত।”

মহাদেবী মহিলাদের উপর যৌন নিপীড়ন দিনের পর দিন বেড়ে যাওয়ায় চিন্তা প্রকাশ করে বলেন, মেয়েরা অনেক রাত পর্যন্ত বাইরে ঘোরাঘুরি করার কারণেই এধরনের ঘটনা বেশী ঘটছে। এই ঘটনার জন্য বিশেষ করে তাদের উত্তেজক পোশাককেই দায়ী করেন তিনি।
মাতা মহাদেবী ভারতীয় মেয়েদের পশ্চিমা পোশাক ত্যাগ করে, নিজ সংস্কৃতি এবং সভ্যতা অনুযায়ী পোশাক পরার অনুরোধ করেন। তিনি বলেন, সমাজে এই ধরণের কার্যকলাপ বেড়ে যাওয়ার পিছনে মেয়েরাও কিছুটা হলে দায়ী।

ব্যাঙ্গালোরে নতুন বছরের প্রাক্কালে ঘটিত নারী হেনস্থার ব্যাপারে আলোচনায় তিনি বলেন, “নতুন বছরে আনন্দ – উল্লাস করতে গিয়ে মেয়েদের উত্তেজক পোশাক পরা মোটেও উচিৎ না।” এই ধরণের আচরন পুরুষ সমাজকে উত্যক্ত করে বলেও তিনি মন্তুব্য করেন। তিনি আরো বলেন, ভবিষ্যতে এই ধরনের ঘটনা থেকে বাঁচতে মেয়েদের নিজেকে ঢেকে রাখা উচিত এমনকি কলেজগুলিতেও মেয়েদের জন্য আরবের মেয়েদের মতো পোশাক চালু করা অত্যন্ত প্রয়োজনীয়।
উল্ল্যেখ্য যে, মাতা মহাদেবী কর্ণাটকের লিঙ্গায়ত সম্প্রদায়ের ধর্মগুরু। লিঙ্গায়ত কর্ণাটকের সবথেকে বড় জাতীয় সম্প্রদায় এবং মাতা মহাদেবী এই সম্প্রদায়ের সব থেকে বড় ‘জগদগুরু’। শুধু তাই নয় তিনি উত্তর কর্ণাটকে অবস্থিত ‘বাসব ধর্মস্থান’ – এর প্রধান অধ্যক্ষের দায়ীত্বেও রয়েছেন।