ঢাকার সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য সাবিনা আখতার তুহিনের আবেগময় ভাষণে রোববার জাতীয় সংসদে পিন পতন নিস্তব্ধতা বিরাজ করে।

সরকারিদলের এই সদস্য প্রধানমন্ত্রীর কারামুক্তি দিবস উপলক্ষ্যে সেইদিনের নানা চিত্র তুলে ধরেন। বিশেষ করে বিএনপি জামাত জোট সরকারের দলের নারী কর্মীদের প্রতি অত্যাচার নির্যাতনের দুঃসহ চিত্র তুলে ধরেন।

মা হবার তিন সপ্তাহের মাথায় নিজের জেলে যাবার কথা তুলে ধরে সাবিনা বলেন, বাচ্চাকে বুকের দুধ পর্যন্ত খাওয়াতে পারিনি অথচ আজ বিএনপি নেত্রীরা সেজে গুজে টকশোতে গিয়ে বড় বড় কথা বলেন।

নেত্রীকে বাংলার অহংকার উল্লেখ করে যুব মহিলা লীগ নেত্রী সাবিনা আখতার বলেন, তৃণমূলের নেতা কর্মীদের আন্দোলনেই নেত্রী কারামুক্ত হয়েছেন।

তিনি বলেন, নেত্রীর বিরুদ্ধে, দলের বিরুদ্ধে অনেক ষড়যন্ত্র হয়েছে, হচ্ছে। সাবিনা বলেন, জীবন দিয়ে হলেও নেত্রীর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র রুখবো। দেশকে বাঁচাবো।

আরও খবর…

‘মাত্র দুটি সিদ্ধান্তের কারণে সরকারের জনপ্রিয়তায় ভাটা পড়েছে’

প্রকাশঃ ১১-০৬-২০১৭, ৮:১১ অপরাহ্ণ

বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে সরকার ও বিরোধী দলের সংসদ সদস্যরা বলেছেন, ব্যাংক আমানতের ওপর অতিরিক্ত আবগারী শুল্ক বাড়ানো এবং সঞ্চয়পত্রের সুদের হার কমানোর প্রস্তাব পুরো বাজেটকেই প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। তারা অবিলম্বে এ দুটি সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করে বলেন, মাত্র এ দুটি সিদ্ধান্তের কারণে সরকারের জনপ্রিয়তায় ভাটা পড়েছে, জনমুখী বিশাল বাজেটকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে।

জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশনে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী ও ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বি মিয়ার সভাপতিত্বে এ আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনায় অংশ নেন সরকারি দলের মুহিবুর রহমান মানিক, সুবিদ আলী ভূঁইয়া, এ কে এম ফজলুল হক, ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা, অনুপম শাজাহান জয়, কবি কাজী রোজী, মকবুল হোসেন, নুর জাহান মুক্তা, এম এ মালেক, ফিরোজা বেগম চিনু, বিরোধী দল জাতীয় পার্টির শওকত আলী ।

আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা বলেন, ব্যাংক আমানতের ওপর শুল্কহার বাড়ানোর প্রস্তাব প্রত্যাহার করতে হবে এবং সঞ্চয়পত্রের সুদের হার হ্রাসের প্রস্তাবও প্রত্যাহার করতে হবে। এ বিষয়ে তিনি প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপও কামনা করে বলেন, মাত্র দুটি সিদ্ধান্তের কারণে সরকারের জনপ্রিয়তায় ভাটা পড়েছে, জনমুখী বিশাল বাজেটকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে।

ফিরোজা বেগম চিনু বলেন, লাখপতিদের থেকে কর না নিয়ে কোটিপতিদের কাছ থেকে অধিক হারে কর আদায় করলে সরকারের রাজস্ব আদায় কয়েকগুণ বৃদ্ধি পাবে।

বিরোধী দলের শওকত আলী বলেন, চালের ভরা মৌসুমেও দাম দ্বিগুণ। মানুষকে শান্তিতে থাকতে দিতে হবে। ব্যাংকে আবগারী শুল্ক বৃদ্ধি এবং সঞ্চয়পত্রের সুদের হার কমানোর ফলে ঢাকা শহরের ৯০ ভাগ মানুষ বিপক্ষে চলে গেছে। কিন্তু মুখ দিয়ে কেউ বলে না। ঢাকায় ১৮ টা সিট, ১ টা সিট পাবেন কি না আমার সন্দেহ আছে। এটা এনালিসিস করার চেষ্টা করেন। ফাঁকা বুলি দিয়া ভুলানোর চেষ্টা কইরেন না।

মুহিবুর রহমান মানিক ব্যাংক আমানতের ওপর আরেপিত শুল্কহার হ্রাসের দাবি জানিয়ে বলেন, জনবিচ্ছিন্ন বিএনপি ক্ষমতায় আসতে সহায়ক সরকারের স্বপ্ন দেখছে। কিন্তু তাদের ক্ষমতায় আনতে লতিফুর মার্কা কোন সহায়ক সরকার আর কোনদিন আসবে না। তিনি হাওরে বাঁধ নির্মাণে অনিয়ম-দুর্নীতির সঙ্গে জড়িতদের তদন্ত সাপেক্ষে কঠোর শাস্তির দাবি জানান।

প্রস্তাবিত বাজেটকে ‘জনমুখী ও কল্যাণকর’ উল্লেখ করে সরকারি দলের সংসদ সদস্য মেজর জেনারেল (অব,) সুবিদ আলী ভূঁইয়া বলেন, ব্যাংকিংখাতে যে দুর্নীতি হচ্ছে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া দরকার। ঋণ অবলোপনের চেয়ে ঋণ আদায়েই ব্যাংকারদের সচেষ্ট হতে হবে। সরকারি দলের নুর জাহান মুক্তাও ব্যাংক আমানতের ওপর আবগারী শুল্ক বৃদ্ধির প্রস্তাব প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে বলেন, মাত্র এ দুটি সিদ্ধান্তের কারণে সরকারের জনমুখী বিশাল বাজেটকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে।বিএনপি এখন ডেডহর্স। অতীত অগ্নিসন্ত্রাস ও কৃতকর্মের কারণে তারা সম্পূর্ণ জনবিচ্ছিন্ন। এই ডেডহর্স নিয়ে বেশি খোঁচাখুচি করলে বরং গন্ধই বেরুবে।