ফের হৃদয় ভাঙল প্রভার —!

বিনোদন প্রতিবেদক ঃ ‘দুঃসময়’ যেন পিছু ছাড়ছে না প্রভার। শোবিজে ক্যারিয়ার শুরুর কয়েক বছর পার করার পর থেকেই নানা চড়াই-উৎরাই আর দুঃসময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছেন তিনি। কিছু সময় সুখের হাওয়া ঝাপটা দিয়ে হারিয়ে যাচ্ছে অন্ধকারেই ফের ! জীবনে ঘটে যাচ্ছে একের পর এক ঘটনা।

মেরিল ট্যালকম পাউডার-এর বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রথমে সবার নজর কাড়েন মডেল ও অভিনেত্রী সাদিয়া জাহান প্রভা। এরপর একের পর এক নাটকে অভিনয় করে জয় করেছিলেন দর্শকমন। কিন্তু এরই মধ্যে হানা দেয় বিতর্কের ঝড়। তাতে তছনছ হয়ে যায় তার সাজানো স্বপ্ন। তবে ওই ঝড় সামলে জীবনের চ্যালেঞ্জ ধরে রাখেন প্রভা। কিন্তু দুর্ঘটনা যেন পিছু ছাড়েনি তার।

সম্প্রতি শ্যামল মওলার সঙ্গে প্রেমের গুঞ্জন নিয়েও বিপাকে রয়েছেন এ অভিনেত্রী। গুঞ্জনের শুরুটা নতুন কিছু নয়! নানা সময়েই থেমে থেমে মিডিয়ায় ফলাও করে প্রচারিত হয়েছে অভিনেতা শ্যামল মাওলার সঙ্গে অভিনেত্রী প্রভার চুটিয়ে প্রেম করার নানা গল্প । ধারে কাছের মানুষদের গুঞ্জনই জানান দিচ্ছিলো প্রেমের গভীরতা ছিলো অনেক।

তবে এমন খবর স্বীকার না করে উড়িয়ে দেবার ঘটনাই ঘটেছে দুজনের পক্ষ থেকেই। দুজনেই বিষয়টিকে হেসে উড়িয়ে দেন। কেউ জানতে চাইলে তারকাদের সেই পুরনো কৌশল মিডিয়া’র গুঞ্জনে যখনই কোন তারকার প্রেমের খবর রটে যায় তখনই তারা নিজেদের মধ্যে ভালো বন্ধুত্ব বলে বিষয়টি উড়িয়ে দেন।

কিন্তু ‘যখন কোন ঘটনা ঘটে তখনই তা কিছু হলেও রটে’ এমন কথা চিরন্তন সত্য করে এ দফায় মিডিয়ায় চাউর হতে যাচ্ছে অভিনেতা শ্যামল মাওলা ও অভিনেত্রী সাদিয়া জাহান প্রভার মধ্যে গড়ে ওঠা এক অসম প্রেমের গল্প।

শুরুটা অবশ্য ছিল বন্ধুত্ব দিয়েই। আড়াই বছর আগে ‘পাগলা হাওয়া’ নাটকের সূত্র ধরে। দীর্ঘ এই ধারাবাহিক নাটকটির মাধ্যমে তাদের সম্পর্কের দীর্ঘতা বাড়ে। কিন্তু মাস তিনেক পরেই মিডিয়ায় গুঞ্জন উঠে তাদের প্রেমের।

কিন্তু তখনই সবার কাছেই অস্বীকার করেন তারা ভালো বন্ধু- এই দোহাই দিয়ে।
তবে অনুসন্ধান আর নির্ভরযোগ্য সুত্রের দেয়া তথ্যমতে তাদের এমন অসম প্রেমের কারণেই ঘর ভেঙেছে অভিনেতা শ্যামল মাওলা’র । এমনকি অভিনেত্রী প্রভারও সংসার ভেঙেছে একই কারনে । কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমে যার খবার প্রকাশ হয় সেই সময়ে।

ইতিহাস সাক্ষী- প্রেমের টানে অনেকেই ঘর ছেড়েছে, ঠিক তেমনি ঘর ভেঙেছে। তবে এই দুই তারকার সম্পর্কের গুঞ্জনের ধোয়াশার ভেতরেই তাদের একসঙ্গে অভিনয় করা নাটকের সংখ্যা প্রায় ৩০টি। এর মধ্যে বেশ কটি দীর্ঘ ধারাবাহিক নাটকও রয়েছে। এছাড়াও তাদের উভয়ের জন্মদিনে দুজনকেই উপস্থিত দেখা গেছে। দেখা গেছে উত্তরার নানা রেস্টুরেন্টে।

এত হৈ চৈ এত গুঞ্জনেও দুজনে ছাড়েননি দুজনের সঙ্গ। কিন্তু সেই দীর্ঘ আড়াই বছর তাদের প্রেমে জোয়ার থাকলেও ইদানিং বেশ ভাটা পড়েছে। হ্যাঁ পাঠক, ভেঙে গেছে শ্যামল-প্রভা’র প্রেম। এখন কোন নাটকে এবং একসঙ্গে কোথায় দেখা যাচ্ছে না। দেখা যাচ্ছেনা কোন রেস্টুরেন্টের কোনার টেবিলে নিয়ন আলোয়।

কিন্তু এত ভালো বন্ধুত্ব কি এভাবে শেষ হয়? সম্পর্কের ধোয়াশা কেটে বরং পুরোনো গুঞ্জনই এখন তার আসল সত্যতার জানান দিচ্ছে। এমনকি কথাও নাকি বলছেন না তারা। মিডিয়ার বিশ্বস্ত সুত্র বলছে,এমনকি দুজনেই বেশ যত্ন করেই নাকি এড়িয়ে চলছেন দুজনকে। তাহলে কি সেটা ? বলার অপেক্ষা বুঝি রাখেনা যে, এর নাম ‘অভিমান’!

এবার এই গুঞ্জনকে দুই অভিনয় শিল্পী কি বলবেন? প্রেমের সম্পর্ক ভাঙবে, গড়বে এটা তো প্রকৃতিরই নিয়ম। কিন্তু বন্ধুত্বের দোহাই দিয়ে সাংবাদিকের চোখ কি আর ফাঁকি দেওয়া যায়? যায় না। এখন নতুন করে কোন সম্পর্কের কথা বলবেন তারা? এসব জানার জন্য অভিনেত্রী অভিনেতা শ্যামলের সাথে টেলিফোনে, সামাজিক মাধ্যমে এমনকি সরাসরি গিয়েও যোগাযোগ করে জানা যায়নি তাদের কোন প্রতিক্রিয়া।

অন্যদিকে, প্রভার প্রতিক্রিয়া জানতে যোগাযোগ করা হলে স্পষ্টই জানিয়ে দেন কথা বলতে নারাজ তিনি। কিছুটা ক্ষোভ ঝেড়ে ‘ঘর পোড়া গরুর রোদ দেখে চমকানোর মতই’জানিয়ে দেন,’অনলাইন নিউজ পোর্টালের প্রতি নাকি তার রয়েছে বিরাগ। কাটা কাটা কথায় শেষ করলেন এই বলেই যে, ‘আমি কোনো অনলাইন নিউজ পোর্টালে এখন সাক্ষাৎকার দেই না। কিছু মনে করবেন না। পরে কোনো সময় কথা হবে’।

‘ঘর পোড়া গরুর রোদ দেখে চমকানোর নেপথ্যে সম্ভাব্য কারন ‘বিশ্লেষণ’

কেন এই অভিনেত্রী সাদিয়া জাহান প্রভা কোনো অনলাইন পোর্টালকে সাক্ষাৎকার দেন না!
চলুন একটু পেছনে ঘুরে আসা যাক, ২০১০ সালে একটি স্ক্যান্ডালে জড়িয়ে পড়েছিলেন এই অভিনেত্রী। সে সময় দেশের বিভিন্ন অনলাইন নিউজ পোর্টাল সেই স্কান্ডাল প্রচার করে বেশ জোরে-সোরেই। আর তাতে সবচেয়ে আরো বেশি হেনস্তার শিকার হন প্রভা।

সুত্র বলছে, এরপর থেকেই তিনি এড়িয়ে চলেন অনলাইন পোর্টাল।

সেসময় বিষয়টি অবশ্য ছিল প্রেম-ভালোবাসার। ২০১০ সালের ১৬ এপ্রিল প্রভার বাগদান হয় তার দীর্ঘদিনের প্রেমিক রাজীবের সঙ্গে। কিন্তু সেটি আর বিয়ের আনুষ্ঠানিকতায় গড়ায়নি। কারণ ইতিমধ্যে অভিনেতা অপূর্বর সঙ্গে প্রেমে জড়িয়ে পড়েন প্রভা। এমনকি তারা পালিয়ে গিয়ে বিয়েও করে ফেলেন। ওই বছরের ১৯ আগস্ট তারা মালাবদল করেন।

খবরটি চাউর হতেই হট্টগোল লেগে যায় বিনোদনজগতে। বাগদান হওয়া স্বামীকে বিয়ে না করে অন্য একজনকে জীবনসঙ্গী করায় ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন এই মডেল অভিনেত্রী। ক্ষুব্ধ হন সাবেক প্রেমিক রাজীব। অপূর্বর ঘরণী হওয়ার আগে ইউটিউবে ফাঁস হয় প্রেমিক রাজীবের সঙ্গে কাটানো কিছু অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি। এ নিয়ে দেশ-বিদেশে শুরু হয় তুমুল বিতর্ক। প্রভা জড়িয়ে পড়েন জীবনের জটিল পঙ্কে।

ফলে অপূর্বর সংসারও করা হয়নি প্রভার। ছাড়াছাড়ি হয়ে যায় তাদের। অপূর্ব ডিভোর্স দেন প্রভাকে। দুজনের দুটি পথ আলাদা হয়ে যায়।

তবে মজার ব্যাপার হলো ২০১০ সালেরই ১৯ ডিসেম্বর অপূর্ব ও প্রভা ভুল বোঝাবুঝির অবসান ঘটিয়ে আবার আলাদা আলাদা বিয়ের পিঁড়িতে বসেন। পারিবারিক পছন্দে প্রভা বিয়ে করেন মাহমুদ শান্ত নামের একজন করপোরেট চাকরিজীবীকে। আর অপূর্বর সংসারে আসেন নাজিয়া হাসান অদিতি। অপূর্ব-নাজিয়ার ঘর এখন আলো করে আছে একটি ছেলেসন্তান।

অপূর্বর বিয়ে নিয়ে পরে প্রভা এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘আমি খুব খুশি হয়েছি অপূর্ব তার মনের মতো জীবনসঙ্গী খুঁজে নিয়েছে। সবারই নিজের জীবন গুছিয়ে নেয়ার অধিকার আছে। আমি মন থেকে অপূর্ব ও তার স্ত্রীর জন্য দোয়া করি, আল্লাহ তাদের ভালো রাখেন।’

প্রভা অন্যের জন্য শুভ কামনা করলেন বটে, কিন্তু নিজের বিয়ে টেকাতে পারেননি। করপোরেট কর্মকর্তা মাহমুদ শান্তর সঙ্গে টানাপোড়েন অবশেষে বিচ্ছেদে গড়ায়। এরই মধ্যে বছর তিনেক নিজেকে আড়াল করে রাখা প্রভা ২০১৪ সালে আবার মিডিয়ায় ফিরে আসেন।

এক বছরের বেশি সময় আলাদা থেকে ২০১৫ সালের মাঝামাঝিতে শান্ত-প্রভার ডিভোর্স হয়ে যায়। এরপর কার্যত একা হয়ে পড়েন প্রভা। ততদিনে মাথায় দুই/তিন স্বামীর সাথে ডিভোর্স, বয়ফ্রেন্ডের সাথে আলোচিত স্কান্ডালের খড়গ সব মিলিয়ে হয়তো পর্যদুস্ত হয়ে পড়ছিলেন এই অভিনেত্রী ।

এরপর আবারো ঝাকি সামলে ‘প্রবল আত্মবিশ্বাসী প্রভা’ টিভি নাটক নিয়ে তুমুল ব্যস্ত সময় পার করতে শুরু করেন। ধারাবাহিক ছাড়াও বেশ কয়েকটি খণ্ড নাটকে অভিনয় করলেন। তবে অনেক দিন ধরে একা থাকলেও এখন অভিনেতা শ্যামল মাওলার সঙ্গে তিনি প্রেম করছেন বলে গুঞ্জন এর ডালপালা ছড়িয়ে গেছে পুরো মিডিয়াতেই ।