নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ব্রাহ্মণবাড়িয়া, যানবাহন বন্ধ। জনদুর্ভোগ পথচারীর।

যোগাযোগ ও সেতুমন্রী ওবায়দুল কাদের আসবেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া। তাই ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সকল উপজেলাকে জেলা শহর হতে বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। পথে পথে পুলিশ পাহারা দিয়ে মানুষকে হয়রানি করা হয়েছে। এমনকি যারা প্রতিবাদ করেছে তাদের শারীরিকভাবে লাঞ্চিতও করা হয়েছে। জেলা আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি সম্মেলন উপলক্ষে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের আসবেন তাই জেলা শহর থেকে যান চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে পুলিশ। এর ফলে দুর্ভোগে পড়েছেন সাধারণ মানুষ।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১০টা থেকে শহরের জাতীয় বীর আবদুল কুদ্দুস মাখন পৌর মুক্ত মঞ্চে জেলা আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি সভা ও সদস্য সংগ্রহ অভিযান শুরু হবে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।
মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের আগমণকে কেন্দ্র করে সকাল থেকেই শহরের প্রধান সড়ক টি.এ রোড থেকে কুমারশীল মোড় পর্যন্ত যানবাহন চলাচল সীমিত রাখা হয়। পরে সভাস্থলে মন্ত্রীসহ আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের আগমণের পর ওই সড়কে পুরোপুরি সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ করে দেয় পুলিশ। সড়কে কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যরা কোনো যানবাহন চলাচল করতে দিচ্ছেন না।

এছাড়া পৌর মুক্তমঞ্চের পেছনে পৌরভবন সংলগ্ন সড়কটি দিয়েও যান চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে পুলিশ।

এদিকে ভোর থেকে বৈরি আবহাওয়ার কারণে জেলা শহরে বৃষ্টিপাত হচ্ছে। সড়কে যান চলাচল বন্ধ করে দেয়ায় বৃষ্টিতে দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন সাধারণ মানুষ। মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলোতে ষাণ্মাষিক পরীক্ষায় অংশ নেয়া শিক্ষার্থীরা যানবাহন না পেয়ে বৃষ্টিতে ভিজে পায়ে হেঁটে বিদ্যালয়ে উপস্থিত হয়েছে।

এদিকে কর্মব্যস্ত সাধারণ মানুষও চরম দুর্ভোগে পড়েছেন।

এ ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে জানা যায় সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধের কোনো নির্দেশনা দেয়া হয়নি পুলিশ। তার পরও রাস্তায় পুলিশ যানচলাচল করতে দেয়নি।