আর্থিক সাহায্যের আবেদন!
আমি অনিরুদ্র দে। আমি আপনাদের মত বাচঁতে চাই। আমার প্রাণ, আপনাদের মুক্ত হস্তে দানের উপর নির্বর করে আছে।আমি মহেশখালী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগের মেধাবী ছাত্র।মহেশখালী উপজেলার মহেশখালী পৌরসভাস্থ( ৫নং) ওয়ার্ড চরপাড়া আমার গ্রাম।ননী গোপাল দে আমার বাবা (কৃষক)আমি তাঁর ছেলে অনিরুদ্ধ।আমি দীর্ঘদিন যাবৎ হার্টবৃদ্ধিজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছি।আমার হার্টের রোগ ধরা পড়ার পর থেকেই কক্সবাজার মেডিকেল,চট্টগ্রাম মেডিকেল,ঢাকা মেডিকেল থেকে দীর্ঘ পাচঁ বৎসর চিকিৎসা গ্রহন করেছি।শরীরের কোন উন্নতি না হওয়ায় তার পরিবার দারস্ত হয় ভারতের বেঙ্গালুরুর বিখ্যাত ডাক্তার (শ্রী দেবী প্রসাদ শেঠি) এবং (পল জনসন) এর কাছে।তিনিও বিভিন্ন ঔষধ পত্রাদির মাধ্যমে আমাকে(অনিরুদ্র) এক বৎসর চিকিৎসায় (পর্যবেক্ষনে)রাখেন।

কিন্তু,অবস্তার উন্নতি না হওয়ায় তিনিও এই সিদ্ধান্তে উপনিত হয় যে,আমার হার্ট দ্রুত ট্রান্সফার করতে হবে।কেননা দিন দিন আমার(অনিরুদ্র) হার্টের পরিধি বেড়ে যাচ্ছে।

যদি,দ্রুত হার্ট ট্রান্সপ্লান্টেশন করা না যায় তাহলে আমাকে(অনিরুদ্ধ) বাচাঁনো সম্ভব হবেনা বলে জানিয়েছেন বিখ্যাত এই ডাক্তার।

এই হার্ট ট্রান্সপ্লান্টেশনের জন্য খরচ হবে প্রায় ১৭ লক্ষ টাকা।এই বিশাল অঙ্কের টাকা যোগাড় করা আমার গরিব মা-বাবার পক্ষে অসম্ভব।তাই সমাজের বিত্তবান,দানশীল এবং সর্বস্থরের জনগনের কাছে চিকিৎসারর জন্য আর্থিক সাহায্য চাই!আমি( অনিরুদ্ধ) ও আমার পরিবার।
উল্লেখ্য যে,একিই রোগে আক্রান্ত হয়ে আমার (অনিরুদ্র)বড় ভাই সনাতন দে মারা যান ১৯৯৭ সালে এবং আমার আরেক বড় ভাই রুবেল দে মারা যান ২০০৩ সালে।

আপনাদের সাহায্যেই হয়ত বাচাঁতে পারে এই অসহায় পরিবারের একটি জীবন। যদি কোন সহৃদয়বান ব্যক্তি আর্থিক সহযোগিতা পাঠাতে চান নিচের এই দুইটা বিকাশ নম্বরে পাঠাতে পারেন। যে দাদা-দিদি,ভাই-বোন,পিতা-মাতা,আমার জন্য কিছু অর্থ দিয়ে সাহায্য করেছেন,,,,আমার শরীরের রক্তদিয়ে বা প্রাণ দিয়ে পরিমাপ করতে পারব না।
আমি সুস্থ হয়ে আপনাদের মাঝে ফিরে আসতে চাই,পড়ালেখা করে,, স্বপ্ন পূরণ করার পাশাপাশি আপনাদের সেবা দিতে চাই।
আমাকে সাহায্য করুন।
বিকাশ নং:০১৮৩৯৯৯২৯৫৩(পারসনাল)
(রনি)
বিকাশ নং:০১৮৩১০৯৫৫৪৭(পারসোনাল)(অসীম)
বিকাশ নং:০১৮৩৯৩৩৬৬১৭(পারসোনাল)(সুমন)
ইসলামী ব্যাংক হিসাব নং: ৫১৯০৫.
DBL নং:
০১৮৩৯৯৯২৯৫৩০
০১৭৩৩৫৫০৬৬৯৮

সবার_উপর_মানুষ_সত্য_তাহার_উপর_নাই