পটুয়াখালীর রাংগাবালীতে একই স্থানে সভা ডাকাকে কেন্দ্র করে
আওয়ামীলীগ ও বিএনপি’র দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আহত হয়েছে উভয় দলের অন্তত: অর্ধশত নেতা-কর্মী ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনের চেস্টা চালালেও এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত উভয়ের মধ্যে
থেমে থেমে সংঘর্ষ চলছে। এনিয়ে এলাকায় চরম উত্তেজনা ও থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। যে কোন সময় বড় ধরনের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের শংকা করছে এলাকাবাসী। উভয় দলের নেতা-কর্মী ও স্থানীয়
নির্ভরশীল সূত্রে জানা যায়, পটুয়াখালী-৪ আসনের বিএনপি প্রার্থী এবিএম মোশারফ হোসেনের সমর্থনে
রাঙ্গাবালী উপজেলা বিএনপি মঙ্গলবার (১১ ডিসেম্বর) বেলা তিনটায় রাংগাবালীর খালগোড়া শাহসুফি জাগিরিয়া মাদ্রাসা প্রাঙ্গনে মাঠে উঠান বৈঠকের
আয়োজন করে। একই স্থানে সভা ডাকে রাংগাবালী উপজেলা আওয়ামীলীগ। এনিয়ে উভয় পক্ষ
হামলা এবং পাল্টা হামলায় জড়িয়ে পড়ে। রাংগাবালী উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি কবির তালুকদার জানান, আওয়ামীলীগের কোন সভা না থাকলেও আমাদের পূর্ব নির্ধারিত উঠান বৈঠক শুরুর পূর্বেই স্থানীয় আওয়ামীলীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা অর্তকিতে হামলা চালায়। আমাদের পূর্ব নির্ধারিত উঠান বৈঠক পন্ড করতে পরিকল্পিতভাবে
আমাদের উপড় হামলা চালানো হয়েছে। এতে আমিসহ দলের প্রায় ষাটজন নেতাকর্মী আহত হয়েছি।
রাংগাবালী সদর ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতা সাইদুজ্জামান মামুন খান বলেন, আওয়ামীলীগের
শান্তিপূর্ন পথ সভায় বিএনপি হামলা চালায়। এতে আমাদের পনের জন নেতা-কর্মী আহত হয়েছে। পরে
স্থানীয় জনতার প্রতিরোধের মুখে তারা পালিয়ে যায়।
রাংগাবালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিলন কৃষ্ণ মিত্র বলেন, একই স্থানে আওয়ামীলীগের পথ সভা এবং বিএনপির উঠান বৈঠক ছিল। একই স্থানে পাশাপাশি হওয়ায় অতি উৎসাহী কর্মীরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পরে।
"/>

পটুয়াখালীর রাংগাবালীতে আওয়ামীলীগ- বিএনপি সংঘর্ষ-আহত ৫০

12 December, 2018 : 8:00 am ১২১
আওয়ামীলীগ ও বিএনপি’র দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আহত হয়েছে উভয় দলের অন্তত: অর্ধশত নেতা-কর্মী ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনের চেস্টা চালালেও এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত উভয়ের মধ্যে
থেমে থেমে সংঘর্ষ চলছে। এনিয়ে এলাকায় চরম উত্তেজনা ও থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। যে কোন সময় বড় ধরনের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের শংকা করছে এলাকাবাসী। উভয় দলের নেতা-কর্মী ও স্থানীয়
নির্ভরশীল সূত্রে জানা যায়, পটুয়াখালী-৪ আসনের বিএনপি প্রার্থী এবিএম মোশারফ হোসেনের সমর্থনে
রাঙ্গাবালী উপজেলা বিএনপি মঙ্গলবার (১১ ডিসেম্বর) বেলা তিনটায় রাংগাবালীর খালগোড়া শাহসুফি জাগিরিয়া মাদ্রাসা প্রাঙ্গনে মাঠে উঠান বৈঠকের
আয়োজন করে। একই স্থানে সভা ডাকে রাংগাবালী উপজেলা আওয়ামীলীগ। এনিয়ে উভয় পক্ষ
হামলা এবং পাল্টা হামলায় জড়িয়ে পড়ে। রাংগাবালী উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি কবির তালুকদার জানান, আওয়ামীলীগের কোন সভা না থাকলেও আমাদের পূর্ব নির্ধারিত উঠান বৈঠক শুরুর পূর্বেই স্থানীয় আওয়ামীলীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা অর্তকিতে হামলা চালায়। আমাদের পূর্ব নির্ধারিত উঠান বৈঠক পন্ড করতে পরিকল্পিতভাবে
আমাদের উপড় হামলা চালানো হয়েছে। এতে আমিসহ দলের প্রায় ষাটজন নেতাকর্মী আহত হয়েছি।
রাংগাবালী সদর ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতা সাইদুজ্জামান মামুন খান বলেন, আওয়ামীলীগের
শান্তিপূর্ন পথ সভায় বিএনপি হামলা চালায়। এতে আমাদের পনের জন নেতা-কর্মী আহত হয়েছে। পরে
স্থানীয় জনতার প্রতিরোধের মুখে তারা পালিয়ে যায়।
রাংগাবালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিলন কৃষ্ণ মিত্র বলেন, একই স্থানে আওয়ামীলীগের পথ সভা এবং বিএনপির উঠান বৈঠক ছিল। একই স্থানে পাশাপাশি হওয়ায় অতি উৎসাহী কর্মীরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পরে।

[gs-fb-comments]