অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ১ নং ধানসাগর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ এর সাধারণ সম্পাদক জনাব তপন বিশ্বাস (তপু) উপস্থিত ছিলেন ১ নং ধানসাগর ইউনিয়ন পরিষদ এর সদস্য জনাব জাহাঙ্গীর হোসেন (আকাশ) এবং এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তি বর্গ। এই সমিতির সদস্যরা বিগত ৭-৮ বছর ধরে এলাকার নানা ধরনের সামাজিক উন্নন মূলক কাজ করে আসছিলেন। এক সময় তারা বৃক্ষ রোপণ অভিযান নিয়ে ব্যাপক প্রচারনা চালায়। তাদের এই সকল সামাজিক কার্যক্রম দেখে এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তি বর্গ তাদেরকে আরও উৎসাহিত করেন। তারই ধারাবাহিকতায় তারা সমবায় অধিদপ্তরে একটি আবেদন করে এবং তাদের আবেদনে সারা দিয়ে সমবায় অধিদপ্তর তাদের অন্তর্ভুক্ত করেন। জাগরণ সার্বিক গ্রাম উন্নয়ন সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক বাবু লিংকন চন্দ্র হাওলাদারের কাছে তাদের সমিতির প্রধান লক্ষ কি তা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাদের সমিতির মুখ্য উদ্দেশ্য হচ্ছে –সমবায় সমিতির মাধ্যমে সমিতির সদস্যদের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ঘটানো। সমিতির লক্ষ হচ্ছে- সমবায় নীতি ও আদর্শ বিষয়ে শিক্ষা, বেকারত্ব দূরীকরণ, মানব সম্পদ উন্নয়ন, কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি, বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করা। সমিতির সভাপতি বাবু প্রশান্ত কুমার হাওলাদারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বর্তমানে আমরা সকলেই বেকার। আমাদের আর্থিক সংকটের কারনে এখনো আমরা মানব সম্পদ সৃষ্টির লক্ষে কোন পদক্ষেপ নিতে পারছি না। তবে আমরা সামাজিক উন্নয়ন মূলক কাজ করে যাচ্ছি। বাংলাদেশ সরকার যদি আমাদের দিকে সু-দৃষ্টি দেন তবে আমরা আমাদের মূল লক্ষে পৌছাতে সক্ষম হবো। "/>

বেকারত্ব দূরীকরণ এর লক্ষে জাগরন সার্বিক গ্রাম উন্নয়ন সমবায় সমিতি লিঃএর পথচলা শুরু

26 February, 2019 : 6:25 pm ৮১৭

শরণখোলা প্রতিনিধি:-

বাগেরহাট জেলার, শরণখোলা থানার, ১ নং ধানসাগর ইউনিয়নের আমড়াগাছিয়া গ্রামে কিছু বেকার যুব শ্রেণী তাদের নিজ উদ্যগে আত্ম-কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষে গড়ে তুলেছেন একটি সমবায় সমিতি। গনপ্রজাতন্তী বাংলাদেশ সরকারের সমবায় অধিদপ্তর কর্তৃক অনুমোদন নিয়ে গত ২০-০২-২০১৯ রোজ- বুধবার শুভ উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে দিয়ে সমিতির কার্যক্রম শুরু করা হয়।

 

 

 

 

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ১ নং ধানসাগর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ এর সাধারণ সম্পাদক জনাব তপন বিশ্বাস (তপু) উপস্থিত ছিলেন ১ নং ধানসাগর ইউনিয়ন পরিষদ এর সদস্য জনাব জাহাঙ্গীর হোসেন (আকাশ) এবং এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তি বর্গ। এই সমিতির সদস্যরা বিগত ৭-৮ বছর ধরে এলাকার নানা ধরনের সামাজিক উন্নন মূলক কাজ করে আসছিলেন। এক সময় তারা বৃক্ষ রোপণ অভিযান নিয়ে ব্যাপক প্রচারনা চালায়।

তাদের এই সকল সামাজিক কার্যক্রম দেখে এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তি বর্গ তাদেরকে আরও উৎসাহিত করেন। তারই ধারাবাহিকতায় তারা সমবায় অধিদপ্তরে একটি আবেদন করে এবং তাদের আবেদনে সারা দিয়ে সমবায় অধিদপ্তর তাদের অন্তর্ভুক্ত করেন।

জাগরণ সার্বিক গ্রাম উন্নয়ন সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক বাবু লিংকন চন্দ্র হাওলাদারের কাছে তাদের সমিতির প্রধান লক্ষ কি তা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাদের সমিতির মুখ্য উদ্দেশ্য হচ্ছে –সমবায় সমিতির মাধ্যমে সমিতির সদস্যদের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ঘটানো। সমিতির লক্ষ হচ্ছে- সমবায় নীতি ও আদর্শ বিষয়ে শিক্ষা, বেকারত্ব দূরীকরণ, মানব সম্পদ উন্নয়ন, কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি, বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করা। সমিতির সভাপতি বাবু প্রশান্ত কুমার হাওলাদারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বর্তমানে আমরা সকলেই বেকার। আমাদের আর্থিক সংকটের কারনে এখনো আমরা মানব সম্পদ সৃষ্টির লক্ষে কোন পদক্ষেপ নিতে পারছি না। তবে আমরা সামাজিক উন্নয়ন মূলক কাজ করে যাচ্ছি। বাংলাদেশ সরকার যদি আমাদের দিকে সু-দৃষ্টি দেন তবে আমরা আমাদের মূল লক্ষে পৌছাতে সক্ষম হবো।

[gs-fb-comments]
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com