ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর উপজেলায় ডাকাত সন্দেহে গণপিটুনিতে আলামিন (৩৫) নামে আরও এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বাঞ্ছারামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তার মৃত্যু হয়।

এর আগে ভোররাতে উপজেলার সোনারামপুর ইউনিয়নের চরশিবপুর গ্রাম থেকে ডাকাত সন্দেহে আটকের পর সুমন ও আলামিনকে স্থানীয়রা গণপিটুনি দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই সুমনের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় আহত আলামিনকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে পুলিশ।

নিহত দুইজন নরসিংদীর মাধবদী উপজেলার বাসিন্দা হতে পারেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। প্রকৃতপক্ষে তারা ডাকাত কি-না সেটি নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

বাঞ্ছারামপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সালাউদ্দিন চৌধুরী জানান, ভোররাতে চর শিবপুর গ্রামের একটি বাড়িতে সুমন ও আলামিনসহ আরও কয়েকজন ডাকাতির উদ্দেশ্যে হানা দেয় বলে জানিয়েছে স্থানীয়রা। পরে বিষয়টি টের পেয়ে মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে স্থানীয়রা ওই দুইজনকে আটক করে গণপিটুনি দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই সুমন মারা যান। এ ঘটনায় অজ্ঞাত আসামি করে হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান ওসি।