আওয়ামীলীগ হল একটি অনভূুতির নাম

আর যখন দেখি ফেসবুকে অনেকই ছাত্রলীগ যুবলীগ সহ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জননেতা ওবায়দুল কাদের জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে চিকিৎসারত দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী ১ নং যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব বহন করবেন এটাই স্বাভাবিক নিয়ম আর এই নিয়মের মধ্য দিয়ে জননেতা মোহাম্মদ হানিফকে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে আর দায়িত্ব পাওয়ার পর পরই কিছু কিছু ব্যক্তিবর্গ মোহাম্মদ হানিফকে অভিনন্দন জানিয়ে বিবৃতি বিজ্ঞাপন দিচ্ছে তাতে মোহাম্মদ হানিফ বিব্রত কারণ আজ ভাবতে হচ্ছে বলতে হচ্ছে আওয়ামী লীগের হচ্ছে একটি অনুভুতির নাম যে কথাটি আমাদের? প্রয়াত সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেছিলেন রাজনীতির একটি সংস্কৃতি আছে আর সেই সংস্কৃতির চর্চা করে তাদের মাধ্যমে তারাই রাজনীতি নেতা হিসাবে সামনের দিকে এগিয়ে যান আজ বলতে হচ্ছে বর্তমান সাধারণ সম্পাদক জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে এটা কোন আনন্দের বিষয় নয় যদি প্রিয় নেতা মোহাম্মদ হানিফ সম্মেলনের মধ্য দিয়ে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হতেন তখন অভিনন্দন জানালে কোন সমালোচনা বা আলোচনা হতো না আর যখন বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মুমূর্ষ অবস্থায় হাসপাতালে দেশের প্রতিটি মানুষ যখন সৃষ্টিকর্তার কাছে ওবায়দুল কাদের কাদের সুস্থতার জন্য দোয়া ও প্রার্থনা করে তখন আরেকজন নেতা কে অভিনন্দন শুভেচ্ছা জানানো কি রাজনীতি সংস্কৃতির মধ্যে পড়ে অভিনন্দন জানানো কি সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের ভাষায় অনুভূতির উপর আঘাত করে না তাই বলতে হচ্ছে লুটেরা দলছুটের রাজনীতির রাজনীতির অতিথি পাখিদের নিবৃত্ত করতে না পারলে আমাদের জন্য আরো কঠিন শিক্ষা অপেক্ষা করবে?