1. বিনোধন প্রতিবেধক //

বাংলা চলচিত্রের অভিনেতা ইলিয়াস কাঞ্চন যিনি তার স্ত্রী কে সড়ক দুর্ঘটনায় হারিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ নিরাপদ সড়ক চাই সংগঠন গড়ে তুলে রাজ পথে আন্দোলন করছেন
এবং আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে সড়ক দুর্ঘটনা ও সড়কের আইন প্রণয়নের দাবি তুলাতে দিন,দিন কিছু হলে ও সড়ক দুর্ঘটনা কমছে
এবং সাধারণ জনগণ সচেতন হচ্ছেন সাধারণ জনগণ নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের কারণে সড়কের নানা রকম সমস্যা থেকে কিছু হলে ও মুক্তি পেয়েছে এবং জনগণের স্বার্থে এই আন্দোলন চালিয়ে যাবে সংগঠনটির চেয়ারম্যান কিংবদন্তি অভিনেতা ইলিয়াস কাঞ্চন.
অন্যজন ব্যারিস্টার সুমন যিনি সমাজের বিভিন্ন স্থানের সমস্যা তুলে ধরে সরকারের কাছে সমাধানের দাবি তুলে ধরেছে এর মধ্যে কিছু সমস্যা বাস্তবায়ন ও হয়েছে
এই ভাবে মানুষের পাশে থেকে সারা জীবন কাজ করবে বলে অঙ্গীকার করেছেন এবং চার পাশের নানা সমস্যা তুলে ধরবেন.
এদের মধ্যে একজন সংসদ সদস্য মুজিবুর রহমান নিক্সন চৌধুরী যিনি প্রবাসীদের হয়রানি বন্ধের দাবিতে জোরালো আন্দোলন ডাক দিয়েছেন এবং তা বাস্তবায়নের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বিমান মন্ত্রী
এছাড়া ও মানুষের জীবন বাঁচানো নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে ইঞ্জিনিয়ার যুবরাজ খান তার একমাত্র সন্তান সু-চিকিৎসার অভাবে মারা যাবার পর থেকে নিরাপদ চিকিৎসা চাই নামে সংগঠনটি গড়ে তুলে সু- চিকিৎসা দাবি সহ হাসপাতালে দালাল নির্মূল,ডাক্তার ফী নিধারণ,টেস্ট বাণিজ্য বন্ধ ,সরকারি হাসপাতাল বৃদ্ধি
সহ বিভিন্ন রকম দাবি তুলে ধরে আন্দোলন করছেন এবং সমগ্র বাংলাদেশে ফ্রি চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছেন নিম্নবিত্ত ও মদ্ধবিত্ত অসহায় মানুষদের যুবরাজ খান বলেন চোখের সামনে পরিবারের একটি মানুষ ও অবহেলায়,বিনা চিকিৎসায় ও সু চিকিৎসার অভাবে মারা যাবে না জীবনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত নির্সার্থে ১৬ কোটি মানুষের জীবন বাঁচানোর জন্য নিস্বার্থে আন্দোলন করে যাবো.
ইতিমধ্যে স্বাস্থ্য মন্ত্রী বেশ কিছু দাবি বাস্তবায়ন করবে বলে সংসদে প্রস্তাব রেখেছেন