নেদারল্যান্ড সরকার পঞ্চম শ্রেনীর ছাত্রদের গীতা পড়া বাধ্যতামূলক করেছে। নেদারল্যান্ড সরকার মনে করে যে হিন্দু ধর্মের এই বইটি পড়লে বাচ্চার মানসিক বিকাশ ঘটবে, আর তাই সরকার আইন প্রনয়ন করে গীতা পড়া অনিবার্য করেছে।
নেদারল্যান্ড মূলত খ্রীষ্ট ধর্মাবলম্বী দেশ, আর সেখানে হিন্দুরা সংখ্যালঘু। নেদারল্যান্ডের মোট জনসংখ্যা 1 কোটি 70 লক্ষ আর হিন্দুর সংখ্যা হল 2 লক্ষ 15 হাজার, মূলত ভারত ও শ্রীলঙ্কা থেকে গিয়ে হিন্দুরা বসবাস করছে।
বিচার করবার বিষয় হল —- একটি খ্রীষ্ট ধর্মাবলম্বী দেশ বাচ্চাদের জন্য গীতা পড়া অনিবার্য করতে পারে, অথচ গীতার উৎপত্তি যেখানে, সেখানে গীতা পড়ানোর কথা উচ্চারন করলে অসহিষ্ণুতা ও সাম্প্রদায়িকতার বাতাবরন তৈরী হয়ে যায়, বিচারধারা নিয়েও প্রশ্ন তোলে ধর্মনিরপেক্ষতাবাদী নামক ভন্ডরা। যারা স্বার্থের জন্য ভারতীয় সংস্কৃতির বলিদান করতে সর্বদাই সচেষ্ট।
এইসব স্বার্থান্বেষী ভন্ডদের ভারত মহাসাগরে ছুড়ে ফেলে দিয়ে, সংস্কৃতিকে পুনরায় স্বমহিমায় প্রতিষ্ঠিত করতে হবে।