অন্ধকারে আচ্ছন্ন বিজয়নগর

3 April, 2019 : 2:44 pm ১৬২

বিজয়নগর।।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরের বিদ্যুৎ বিভাগের ঐতিহ্য হচ্ছে ঝড়ে বা বৃষ্টির পূর্বাভাস পাওয়ার ২ ঘন্টা পূর্বে বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ করে দেয়া । এর পর আর কোন খবর থাকে না। ৩ -৪ দিন পর বিদ্যুৎ আসলেও আসতে পারে আবার নাও আসতে পারে। দীর্ঘদিনের এ ধারাবাহিক কর্মকান্ড পরিচালিত হয়ে আসছে। এ নিয়ে জনমনে এক ধরনের ভৌতিক বিশ্বাস তৈরী হয়েছে যে, বিদ্যুৎ যাওয়া মানেই ৪-৫ দিন বিদ্যুৎতের দেখা আর মিলবে না। গত সোমবার শেষ বিকেলে চৈতালী ঝড়ে বিজয়নগর উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। স্বাভাবিক ভাবেই এ ক্ষতির অংশটুকু বিদ্যুতের তারে পড়বেই। যেহেতু এ উপজেলার অধিকাংশ এলাকা বাঁশঝাড়ের জন্য বিখ্যাত। তার অর্থ এই নয় যে, ঝড় হলেই ৪-৫ দিন বিদ্যুৎ থাকবে না।

এ সমন্ধে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জিএম প্রকৌশলী মো: শাহ জাহান তালুকদারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, এই এলাকায় অতিরিক্ত বাঁশঝাড়, গাছপালা থাকার ফলে বিদ্যুৎতের লাইনে ক্ষয়ক্ষতি হয়। এবারের ঝড় সময়ের আগে শুরু হয়েছে। অন্য জেলা থেকে বিদ্যুৎ বিভাগের লোক এনে দ্রুত বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করতে সর্বাত্নক চেষ্টা চালাচ্ছি।

তবে বিজয়নগরে কয়েকটি স্থানে বিদ্যুৎ ব্যবস্থা চালু ছিল।

[gs-fb-comments]