কুমিল্লা।।

আপনি কি জানেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসেবে করোনারি হৃদরোগের ৫৪% এর জন্যে দায়ী হলো ধূমপান? গবেষণায় দেখা গেছে, অন্য যে-কারো চেয়ে একজন ধূমপায়ীর হার্ট-এটাকের আশঙ্কা ছয় গুণেরও বেশি। এমনকি ইতোমধ্যে যারা করোনারি হৃদরোগে ভুগছেন, দেখা গেছে, অনেক সময় একটা সিগারেট খেতে গিয়েও তার হার্ট-এটাক এবং তা থেকে মৃত্যু হয়েছে।

ধূমপান বর্জনের জন্যে আপনি একটি কার্যকর পদ্ধতি অনুসরণ করতে পারেন। গত দুই দশকে অসংখ্য মানুষ এ পদ্ধতিটি অনুসরণ করে ধুমপানের বদভ্যাস থেকে পুরোপুরি মুক্ত হয়েছেন।

১. ইচ্ছা ও সিদ্ধান্ত ১. ইচ্ছা ও সিদ্ধান্ত ১. ধূমপান ছাড়ার জন্যে বাস্তবে কোনো দৃঢ় প্রতিজ্ঞার প্রয়োজন নেই। এজন্যে নিজের ইচ্ছা আর সিদ্ধান্তটাই যথেষ্ট।

২. সিগারেট ও ম্যাচ পকেটেই রাখুন ২. সিগারেট ও ম্যাচ পকেটেই রাখুন ২. অনেকেই সিগারেট ছাড়ার কথা ভেবে পকেটে সিগারেট রাখেন না। ভাবেন, পকেটে থাকলেই খেতে ইচ্ছে করবে। তারা বুঝতে পারেন না যে, সাথে না থাকলে ধূমপানের ইচ্ছেটা আরো বেশি হবে। পকেটে সিগারেট না রাখলে দেখা যাবে, আপনি অন্যের কাছ থেকে সিগারেট চেয়ে নিচ্ছেন। তাই সিগারেট ও ম্যাচ পকেটেই রাখুন।

৩. অন্য কাজ করার সময় ধূমপান করা থেকে বিরত থাকুন ৩. অন্য কাজ করার সময় ধূমপান করা থেকে বিরত থাকুন ৩. আপনি শুধু খেয়াল রাখুন, কখন আপনি সিগারেট ধরান। ধূমপানের ইচ্ছা একেকজনের মধ্যে একেক সময়ে জাগে। কেউ টেলিফোনে আলাপ করতে করতে, কেউ কোনো আলোচনার শুরুতে, কেউ টিভি দেখার সময়, কেউ খাবারের পর পর, কেউ-বা আবার চায়ের কাপে চুমুক দিতে দিতে সিগারেট ধরান।

এ সময়গুলোতে তিনি অনেকটা নিজের অজান্তেই সিগারেট ধরিয়ে ফেলেন। আজ থেকে আপনি কেবল অন্য কাজ করার সময় ধূমপান করা থেকে বিরত থাকুন। যদি সিগারেট ধরিয়ে ফেলার পর খেয়াল হয় যে, আপনি সিগারেট ধরিয়ে ফেলেছেন, তাহলে নিজেকে জিজ্ঞেস করুন, আপনি এখন সত্যি সত্যি সিগারেট খেতে চান কিনা।

৪. ধূমপান করুন অন্য সব কাজ বাদ দিয়ে ৪. ধূমপান করুন অন্য সব কাজ বাদ দিয়ে ৪. যদি সত্যি সত্যিই সিগারেট খাওয়ার ইচ্ছা হয়, তাহলে অন্য সব কাজ বাদ দিয়ে চুপচাপ আরাম করে বসুন। তথ্য- আরএমজিবিডি নিউজ। ০৫/০৪/১৯(শনিবার).