ব্রাক্ষণবাড়িয়া।।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার স্থানীয় ‘দৈনিক সরোদ’ পত্রিকার ফটো সাংবাদিক শংকর দাসের মেয়ে দুর্গা দাস (১৫) দূরারোগ্য ব্যাধি ক্যানসারে আক্রান্ত। ঢাকার একটি হাসপাতালে এক মাস চিকিৎসা নিয়ে অর্থের অভাবে এখন তাঁর চিকিৎসা থমকে আছে। দুর্গা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরের আনন্দময়ী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী।
চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, দুর্গার ক্যানসার নির্মূলে ছয়টি কেমোথেরাপি দিতে হবে। সবগুলো কেমোথেরাপি ও হাসপাতালের অন্যান্য খরচের জন্য দুই লাখ টাকার প্রয়োজন। কিন্তু দরিদ্র শংকর দাসের পক্ষে এই টাকার যোগান দেয়া সম্ভব হচ্ছে না। এ জন্য সমাজের বিত্তবানদের কাছে মেয়ের চিকিৎসার জন্য সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন তিনি।
ফটো সাংবাদিক শংকর দাস জানান, মাস তিনেক আগে দুর্গা পেটে ব্যথা অনুভব করলে তাঁকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখান থেকে চিকিৎসক দুর্গাকে ঢাকায় রেফার্ড করেন। ঢাকায় নেয়ার পর প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নীরিক্ষা করে চিকিৎসকরা জানান দুর্গার জরায়ুর পাশে টিউমার হয়েছে। এরপর আত্মীয়-স্বজনদের কাছ থেকে টাকা ধার নিয়ে সেই টিউমার অপারেশন করার পর সেখানে ক্যানসার ধরা পড়ে।
তিনি আরও জানান, চিকিৎসকরা জানিয়েছেন ক্যানসার নির্মূলের জন্য ছয়টি কেমোথেরাপি দিতে হবে। প্রতিটি কেমোথেরাপি দিতে ৩০ হাজার টাকা করে লাগবে। ইতোমধ্যে একটি কেমোথেরাপি দিয়ে দুর্গাকে বাসায় নিয়ে আসা হয়েছে। বাকি কেমোথেরাপিগুলো দেয়ার মতো টাকা আমার নেই। তাই বিত্তবানদের কাছে আমার মেয়ের জন্য সাহায্য চাই।

দুর্গা দাসের চিকিৎসার জন্য সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা
যোগাযোগঃ শংকর দাস
সঞ্চয়ী হিসাব নম্বরঃ ০৪৬৩২০১০০০০৩৯৯৩৮
ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেড
ব্রাহ্মণবাড়িয়া শাখা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া
ফোনঃ ০১৭০৮১৮৮২৯০