ফেনী।।

ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল সিনিয়র ডিগ্রি মাদরাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন দিয়ে হত্যার ঘটনায় মাদরাসা শাখার ছাত্রলীগের সভাপতি শাহাদাত হোসেন শামীমকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

শুক্রবার (১২ এপ্রিল) রাতে ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পিবিআই ফেনীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) মো. মনিরুজ্জামান।

পুলিশ ও পিবিআই এখন পর্যন্ত ১৩ জনকে গ্রেফতার করে ৯ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে।

নুসরাতের গায়ে আগুন দেয়ার মামলায় গ্রেফতাররা হলেন- মাদরাসা অধ্যক্ষ এস এম সিরাজ উদ দৌলা, সোনাগাজী পৌর কাউন্সিলর ও পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মুকছুদ আলম, মাদরাসার ইংরেজী বিভাগের প্রভাষক আবছার উদ্দিন, নুর উদ্দিন, মাদরাসার ছাত্রলীগ সভাপতি শাহাদাত হোসেন শামীম, সহপাঠি আরিফুল ইসলাম, নুর হোসেন, কেফায়াত উল্লাহ জনি, মোহাম্মদ আলা উদ্দিন, শাহিদুল ইসলাম, অধ্যক্ষের শ্যালিকার মেয়ে উম্মে সুলতানা পপি, জাবেদ হোসেন ও যোবায়ের হোসেন।

তবে এই মামলার এজহারভুক্ত আসামিদের মধ্যে উপজেলার সফরপুর গ্রামের হাফেজ আবদুল কাদেরকে এখনও গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

এদিকে মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক সরাফ উদ্দিন আহম্মেদের আদালতে নুর হোসেন, কেফায়াত উল্লাহ, মোহাম্মদ আলা উদ্দিন ও শাহিদুল ইসলামকে ৫ দিন; বুধবার (১০ এপ্রিল) অধ্যক্ষ এসএম সিরাজ উদ দৌলাকে ৭ দিন; আবছার উদ্দিন ও আরিফুল ইসলামকে ৫ দিন এবং বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) উম্মে সুলতানা পপি ও যোবায়ের হোসেনকে ৫ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়।