ব্রাহ্মণবাড়িয়া।।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ওমরাহানকে তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে গত ২৫অক্টোবর ১৯৯৯ সালে হত্যা করা হয়। ওমরাহানের ভগ্নিপতি এম এ আজিজ বাদী হয়ে কসবা থানায় ৪১জনকে আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের করেন। বিএনপি জোট সরকার আস্র পর মামলাটি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করে মামলাটি স্থগিত করে দেন। আওয়ামী লীগ সরকার আসার পর মামলাটি এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে বিচার কার্যপরিচালনা করার জন্য উচ্চ আদালত থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সাব জজ আদালতে প্রেরণ করা হয়। মামলার বাদী এম এ আজিজ জানান,ওমারাহানের হত্যা বিচার হলে তার মৃত্যু মা-বাবার আত্বা শান্তি পাবে। অপর দিকে ওমরাহানের বড় ও ছোট ভাই জানান,দীর্ঘ ১৯বছর মা বাবা ছেলের হত্যার বিচারটি না দেখে চলে গেলেন। আমরা হত্যাক্রীদের ফাঁসী চাই। ২৩/৪/২০১৯ইং মঙ্গলবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া ওমরাহানের হত্যা মামলাটির বিচার শুরু হচ্ছে বলে বাদী এম এ আজিজ জানান।