ব্রাহ্মণবাড়িয়া।।

ডেন্টাল সার্জন এসোসিয়েশন অব ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আয়োজনে সাইন্টিফিক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে ।
গত শুত্রুবার সন্ধ্যায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ঘাটুরা একমি ফার্মাসিউটিক্যাল হল রুমে দন্ত চিকিৎসক দের নিয়ে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।
এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ডেন্টাল সার্জন এসোসিয়েশনের ব্রাহ্মণবাড়িয়া শাখার সভাপতি
ডা মেসবাহ উদ্দিন।
ডেন্টাল সার্জন এসোসিয়েশনের অব ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সভাপতি ডা.এম এ মুনছুরের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ডেন্টাল সার্জন এসোসিয়েশনের অব ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সহ সভাপতি ডা.নাজমুল হাসান চৌধুরী,সাংগঠনিক সম্পাদক ডা সাইফুল্লাহ সারোয়ার।
ডেন্টাল সার্জন এসোসিয়েশনের অব ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সাধারন সম্পাদক ডা মোস্তাফিজুর রহমান খাঁনের
পরিচালনায় সেমিনারে বক্তব্য রাখেন ডা.মোহাম্মদ খবির উদ্দিন, ডা.সাইফুল্লাহ সারোয়ার, ডা.দিদার আলম খান, ডা.মাজহারুল ইসলাম, ডা.রিয়াজ উদ্দিন খান তুষার, ডা.সাফায়েত হোসেন, ডা.নুরুল হুদা পাভেল,ডা:সাফ ওয়ান নাবিল, ডা:আহসানুল মোমিন,ডাঃ আশফাকুর রহমান সজীব,ডাঃ মাহাবুব হোসেন, ডা.তানভীর, ডা. জাকারিয়া, ডা. সানাউল কবীর, ডা.শোয়েব আহমেদ, ডা.বাকী, ডা.মাসুম, ডা.সাইদ প্রমূখ

সেমিনারে বক্তারা বলেন বি ডি এস ডিগ্রি ছাড়া কেউ দাতের ডাক্তার, দন্ত চিকিৎসক, ডেন্টাল সার্জন বা ডেন্টিস্ট নয়।
বিডিএস ডিগ্রিধারীরাই ডেন্টাল সার্জন। ডেন্টাল সার্জনরা সেসব কলেজে লেখাপড়া করেন, সেখানে হাসপাতাল আছে। সেই হাসপাতালেই ইন্টার্নশিপ হয়। দাঁতের এক্সরে করা, দাঁত বানানো বা ল্যাবের বিভিন্ন কাজ নিয়ে যে কোর্স তা হলো ডেন্টাল টেকনোলজি। ডেন্টাল টেকনোলজিতে দুটি কোর্স- ডিপ্লোমা ও বিএসসি। আগে ডিপ্লোমা পরে বিএসসি। মেডিসিন সার্জারি যাদের নাই তারা ডাক্তার হয় কীভাবে? তাদের কোনো ইন্টার্নশিপ নেই। নিজস্ব কোনো হাসপাতাল নেই। টেকনোলজিস্টরা যদি ডাক্তার হয়ে যান, তাহলে মেডিকেল কলেজে তো কেউ পড়বেন না।
তারা বলেন ডেন্টাল টেক্নোলোজিস্ট ডেন্টাল এসিষ্ট্যান্ট হিসেবে কাজ করতে পারবে।আর যাদের কোন ডিপ্লোমা ডিগ্রী ও নাই, স্বশিক্ষিত কমার্সে এসএসি করা কিছু ডাক্তার ও আমাদের সমাজে বিদ্যমান।এদের বিরুদ্ধে এ যথাযথ কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য আবেদন জানানো হয়।
বক্তারা আরো বলেন, যারা ডেন্টাল ডিপ্লোমা এবং বিএসসি ডিগ্রিধারী টেকনোলজিস্ট আছেন, তারা তো ডেন্টাল সার্জন হতে পারে না।
অনুষ্ঠিত সেমিনারে ২৫জন বিডিএস ডিগ্রি প্রাপ্ত ডেন্টাল সার্জনসহ জেলা শাখা নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।