ঢাকা।।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি আদালতের উপর নয়, নির্ভর করছে প্রধানমন্ত্রীর ইচ্ছের উপর।

আজ সোমবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির স্বাধীনতা হলে নাগরিক অধিকার ফোরামের উদ্যোগে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তারেক রহমানের সকল মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর যে অডিও ক্লিপ বের হয়েছে এজন্য আদালতের উচিৎ তাকে ডেকে এ ব্যাপারে জানতে চাওয়া। আমরা চাই আদালতের পক্ষ থেকে জানতে চাওয়া হোক যে, আদালতের বিষয়ে যদি তিনিই সব ঠিক করে দেন, তবে আদালতের দরকার কি?’

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, একটি দেশের প্রধানমন্ত্রী লন্ডনে হোটেল বুকিং দিতে পারে না, এক হোটেল থেকে অন্য হোটেলে গাড়ি নিয়ে ছুটাছুটি করতে হয় এটা স্বাভাবিক বিষয় না। তিনি বলেন, লন্ডনে প্রধানমন্ত্রীর বোনের বাসা আছে। উনি হোটেল বুকিং না পেলে সেখানে উঠতে পারতেন।

তিনি আরো বলেন, আমরা যেহেতু সংসদে শপথ নিয়ে নিয়েছি সেহেতু এ বিষয়ে কোনো কথা বলার সুযোগ নেই। সিদ্ধান্ত সঠিক না ভুল ছিলো সেটা পরে প্রমাণিত হয়। কিন্তু দল পরিচালনা করতে হলে অনেক সময় তাৎক্ষণিকভাবে সিদ্ধান্ত নিতে হয়।

তিনি বলেন, দলীয় ভাবে যে সব সিদ্ধান্ত নেয়া হয় আমাদের উচিত তা মেনে কাজ করা।

দলীয় নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে সমালোচনা দলের মধ্যে আস্থা ও বিশ্বাস কমায় উল্লেখ করে গয়েশ্বর বলেন, ‘আমরা কারো বিরুদ্ধে সমালোচনা না করে নিজের আত্মসমালোচনা করে সংশোধনের মাধ্যমে ইস্পাত কঠিন ঐক্য গড়ে তুলি। এতে দল শক্তিশালী হবে, দলের মধ্যে আস্থা ও বিশ্বাস বৃদ্ধি পাবে।