আশুগঞ্জ।।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খান বলেছেন, নারীদের আত্মরক্ষার জন্য মার্শাল আর্টের বিকল্প হতে পারে না। মার্শাল আর্ট ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নারীদের নিরাপত্তার শক্তি হিসেবে কাজ করবে। মার্শাল আর্টের বিভিন্ন কৌশল জানা থাকলে একটি মেয়ে প্রাথমিকভাবে যেকোন পরিস্থতির মোকাবেলা করতে পারবে।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে আড়াইসিধা কে, বি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তৃতীয় লোকাল গভর্ণ্যান্স প্রজেক্ট (এলজিএসপি-৩) এর কর্মসূচীর আওতায় ছাত্রীদের আত্মরক্ষার কৌশল অর্জনে মার্শাল আর্ট প্রশিক্ষণের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এই কথা বলেন।
এসময় তিনি আরো বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ১০০টি ইউনিয়নের প্রতিটি স্কুলের ছাত্রীদের এই মার্শাল আর্ট প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হবে। চলতি বছরে জেলার ৫ হাজার ছাত্রীকে এই মার্শাল আর্ট প্রশিক্ষণ দেয়া হবে। এই কৌশলের মাধ্যমে নিজেরা যেন নিজেকে রক্ষা করতে পারে সেই জন্য বেশ কিছু পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।
আশুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. নাজিমুল হায়দার এর সভাপতিত্বে উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, জেলার স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক দূর-রে-শাহনেওয়াজ, জেলার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার প্রশান্ত বৈদ্য, আড়াইসিধা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. সেলিম মিয়া প্রমূখ। আলোচনা সভা শেষে প্রশিক্ষকরা উপস্থিতদের মার্শাল আর্টের বিভিন্ন কলা-কৌশল করে দেখান।
কোরিয়ার বিখ্যাত মার্শাল আর্ট সংগঠন তাইকোয়ান্ডো এর নামে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মার্শাল আর্ট সংগঠন তাইকোয়ান্ডো এর কোচ নুজুবা ইসলাম খান এর তত্বাবধানে ১৬ জনের একটি টিম আড়াইসিধা কে বি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩০ জন ছাত্রীকে ৪ মাস এই প্রশিক্ষণ দেবেন।