নবীনগর।।

গত দুদিন সামান্য ঝড় এবং সামান্য বৃষ্টি কি কেন্দ্র করে নবীনগর বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থার যে নাখাল অবস্থা তা নাকাল করে তুলছে জনজীবনকে।
সামান্য ঝড় ও বৃষ্টির পরে সেই যে বিদ্যুৎ চলে যায় আর দেখা নেই !
এই সমস্যা শুধু ইদানিং নয় বিগত দেড় যুগ ধরে নবী নগর বাসি বিদ্যুৎ নিয়ে এই ভেলকিবাজির সম্মুখীন হয়েই চলছে।
কি অদ্ভুত অবস্থা বাংলাদেশের কোন উপজেলায় সামান্য বৃষ্টি আর ঝড় কে কেন্দ্র করে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ ব্যবস্থা এভাবে চলতে এই প্রথম দেখলাম।

বিদ্যুৎ চলে যাওয়ার পর অফিসে মোবাইলে যোগাযোগ করলে কর্তৃপক্ষ ফোন না রিসিভ করা বিশেষ বিশেষ সময়ে ফোন ধরলেও অমুক জায়গায় খুটি ভেঙে যাওয়া, তমুক জায়গায় তার ছিড়ে যাওয়া, ট্রান্সফরমার বাস্ট হয়ে যাওয়া, অভিযোগ কেন্দ্রের লোক না থাকা শুনতে শুনতে কান ঝালাপালা হয়ে যাচ্ছে ।

দুদিন যাবৎ বিদ্যুৎ নেই, প্রচন্ড গরম আর রোজায় হাঁপিয়ে উঠেছে ভুক্তভোগীরা।
মোবাইল চার্জ দিতে না পারা, ফ্রিজের দরকারি খাবার নষ্ট হয়ে যাওয়ার তো কোন শেষই নেই।
এভাবে আর কতদিন ?
একটি উপজেলার বিদ্যুৎ বিতরণ নিয়ে কর্তৃপক্ষ কতটা উদাস তা আমরা হারে হারে উপলব্ধি করছি।

৩৩ হাজার ভোল্টের লাইন নিয়ে অনেক রাজনীতি হয়ে।
দয়া করে মানুষের ইমোশন নিয়ে আর খেলা করবেন না।
তাহলে জনতার রোষানলে আপনি/আপনারা কবে ওয়াশিং হবেন সেটা উপরওয়ালাই ভাল জানেন।

আরে ভাই আমলাতান্ত্রিক জটিলতার দোহাই দিয়ে তো ১৫ বছর পাড় করলেন আপনারা!

ওয়াপদা আর পল্লীবিদ্যুৎ এর লাইন সংস্কারের জটিলতার সমীকরণ শুনতে আর মজা লাগছে না।।