বিনোদন।।

ছবির নাম ‌’হৃদিতা’ নয় ‘ড্রিমগার্ল’। নায়িকারও পরিবর্তন হচ্ছেনা। থাকছেন অধরাই। জানালেন, ছবিটির প্রযোজক। ছবিটির প্রযোজক বলেন,  ‘আমার ছবির নাম ড্রিগার্ল। এ নামেই নায়িকা  অধরাকে অফিসিয়ালি চুক্তিবদ্ধ করেছি আমরা। নায়িকা বা ছবির নাম পরিবর্তনের কথা আমার সঙ্গে হয়নি। অধরাকে নিয়েই ড্রিমগার্ল নির্মিত হবে।’

প্রযোজক এখন দেশের বাইরে আছেন। দেশে এলেই এ বিষয়ে বিস্তারিত কথা বলবেন বলে জানালেন।

বেশ কয়েক মাস আগে এএস সিনেমার ব্যানারে ‘ড্রিমগার্ল’ ছবির নির্মাণের ঘোষণা দেন  যুগল নির্মাতা ইস্পাহানি আরিফ জাহান।  ছবির নায়িকা হিসেবে রাজধানীর ঢাকা ক্লাবে বেশ ঘটা করে অধরা খানকে চুক্তিবদ্ধও করেন তারা। পরে চিত্রপাড়া এফডিসিতে হয় ‌’ড্রিমগার্ল’ এর আনুষ্ঠানিক মহরত। এ মহরতে গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে ছবিটির নায়িকা অধরা খানকে পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়। ছবিটির নায়ক হিসেবে আরও পরিচয় করিয়ে দেয়া হয় রোশানকেও।

ওই অনুষ্ঠানে পরিচালকদ্বয় জানান,  ছবির গল্প তৈরি কাজ চলছে। কয়েকটি গল্প নিয়ে তারা আলোচনা করেছেন। কিছু দিন যেতে না যেতেই জানানো হয় গল্পের প্রয়োজনে ছবির নাম রাখা হচ্ছে ‘সুন্দরী তমা’। ইস্পাহানি আরিফ জাহানই জানান এ খবর।

তবে সে নামে শুটিং ফ্লোরে গড়ায়নি ছবিটি।  এবার  লেখক আনিসুল হকের কাছ থেকে তার ‘হৃদিতা’ উপন্যাস নিয়ে ছবি বানানোর অনুমতি নেন নির্মাতাদ্বয়। জানান এ গল্প নিয়েই নির্মাণ হবে তাদের সেই ছবি।  পরিবর্তন হবে নামও।  পরে হুট করেই  সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে জানান, ছবির নাম ‘ড্রিমগার্ল’ নয়, ‘হৃদিতা’ হবে। ফেসবুকে স্ট্যাটাসের মাধ্যমে নাম পরিবর্তনের পাশাপাশি নায়িকাও পরিবর্তন করার কথাও জানান তারা।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এমন ঘোষণা দেয়ার পর ছবির প্রযোজকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানালেন, ছবির নাম ‌’ড্রিমগার্ল’ই থাকবে। নায়িকাও থাকবে অধরা খান।

বিষয়টি নিয়ে যোগাযোগ করা হয় চিত্রনায়িকা অধরা খানের সঙ্গে। তিনি বলেন, ’ড্রিমগার্ল ছবিতে আমি নেই। এ কথা অফিসিয়ালি আমাকে কেউ জানাননি। না পরিচালক না প্রযোজক। হৃদিতা নিয়ে আমি কোন কথা বলবো না। আমি তো ড্রিমগার্ল  নামের ছবিতে  আনুষ্ঠানিকভাবে চুক্তিবদ্ধ হয়েছি। হৃদিতা বা অন্য কোনো নামের ছবিতে আমি চুক্তিবদ্ধ হইনি। হৃদিতার গল্প আমি  জানিওনা। কী চরিত্র হবে সেটাও অজানা। গল্প আর চরিত্র না জেনে কীভাবে কাজ করবো।’

তবে ড্রিমগার্ল ছবিতে আগে আপত্তি না থাকলেও এখন আপত্তি জানাচ্ছেন এ নায়িকা। বলেন, ড্রিমগার্ল নামে যে ছবিটি হবে সেটাতে আমার আগে আপত্তি ছিলো না। এখন যেহেতু নতুন গল্প থাকছে তাই গল্পটিও আমার জানা দরকার। তাতে  আমার চরিত্রটি কী সেটাও জানতে হবে। এরপরই নিশ্চিতভাবে বলতে পারবো।’

এদিকে শুটিং শুরু  হবে বলেও হচ্ছেনা ছবিটির শুটিং। প্রযোজক জানালেন সব ঠিক থাকলে অধরাকে নিয়েই চলতে বছরের জুলাইতে ড্রিমগার্লের ক্যামেরা ওপেন হবে।