ব্রাহ্মণবাড়িয়া ।।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলাসহ সারাদেশে পর্যায়ক্রমে বেড়েই চলেছে (একাধিক কার্ডধারী) ভূয়া সাংবাদিকদের দৌড়াত্ব ও আনাঘোনা । এই সকল ভূয়া সাংবাদিকদের দৌড়াত্বের কারণে মাঠে-ময়দানে কঠোর পরিশ্রম করে সংবাদ পরিবেশনকারী পেশাগত কাজের প্রকৃত সাংবাদিকদের স্বুনাম দিন দিন ক্ষুণ্য হচ্ছে ।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদরসহ জেলার আখাউড়া,কসবা, বিজয়নগর, নাসিরনগর,সরাইল,আশুগঞ্জ, নবীনগর ও বাঞ্ছারামপুরসহ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৯ টি উপজেলা জুড়েই’ দৌড়াত্ব রয়েছেন বিভিন্ন অপরিচিত নামের স্থানীয় ও জাতীয় সংবাদপত্রের রিপোর্টারের একাধিক কার্ডধারী ভূয়া সাংবাদিক।

একাধিক কার্ডধারী ভূয়া সাংবাদিকদের হাতে প্রতারিত হওয়াসহ নানানভাবে নির্যাতিত হচ্ছেন গ্রামগঞ্জের সাধারণ মানুষ।

এ বিষয়ে একাধিক অনুসন্ধানে জানাযায়, নামে/বেনামে নামমাত্র সংবাদপত্র এইসকল পত্রিকার অসাধু শ্রেণীর সম্পাদকদেরকে একটি চক্র মোটা অংকের টাকা দিয়ে রাজমেস্ত্রী, সিএনজি চালক, প্রাইভেটকার চালক, ডেস্টিনি মাল্টিবিজনেস কোম্পানীতে কাজ করা এক সময়ের প্রতারক, থানা পুলিশের এজাহারভূত সন্ত্রাসী, ডাকাতি মামলার আসামী, চোর, মাদক ব্যবসায়ী, কুখ্যাত ছিনতাইকারীসহ সমাজে একসময়ে নানান অপকর্মে জড়িত থাকার অপরাধীদের হাতে তুলেদিচ্ছেন সাংবাদিকতা নামের এই মহান পেশার পরিচয়পত্র ।

এইসকল অপরাধীরা মহান পেশার এই পরিচয়পত্রকে পুঁজিকরে সমাজের বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষকে বেকায়দায় ফেলে ব্লেকমিলের মাধ্যমে হাতিয়ে নিচ্ছেন মোটা অংকের টাকা ।

এদের মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর শহরের অর্ধশত প্রতারক চক্ররা ভিবিন্ন দালালের মাধ্যমে সমন্বনয় করে,স্হহানীয় নামধারী নামমাত্র জাতীয় দৈনিক ও সাপ্তাহিক পত্রিকার রিপোর্টারের পরিচয়পত্র গঁলায়জুলিয়ে সাংবাদিক পরিচয়ে জেলার বিভিন্ন প্রত্যান্ত গ্রামগঞ্জে গুড়েবেড়াচ্ছেন এইসকল সমাজ বিচ্ছিন্ন এক সময়ের প্রতারকরা ।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার একাধিক কার্ডধারী ভূয়া সাংবাদিকদের পেশাগত গতিবিধির উপর তথ্য অনুসন্ধানের মাধ্যমে এদের বিরুদ্ধে আইনগতভাবে ব্যবস্থা গ্রহনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের হস্তক্ষেপ কামনা করেন এই মহান পেশায় কর্মরত ইলেকট্রনিক, প্রিন্ট ও অনলাইন মিডিয়ায় প্রকৃত পক্ষে পেশাগতকাজে নিয়োজিত সংবাদ কর্মী ও সিনিয়র সাংবাদিকবৃন্দরা ।