বাগেরহাট।।

জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে, গত ২ রা জুন বিকালে বাগেরহাট জেলার মোংলা উপজেলায় হিন্দু সম্প্রদায়ের একই পরিবারের ৬ জনকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করা হয়।
স্থানীয়রা জানান যে, খুলনার প্রভাবশালী আওয়ামী লীগ নেতা ও রূপসা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. কামাল উদ্দিন বাদশা ও তার সহযোগী মোঃ ফজলু মিয়ার নেতৃতে ১২-১৫ জনের একদল কুখ্যাত অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী বাহিনী মোংলা উপজেলার বুড়িরডাঙ্গা ইউনিয়নের দোয়ানেরকুল গ্রামে গৌরাঙ্গ তরফদারের বাড়িতে হামলা চালায়। এতে মহিলা সহ মোট ৬ জন আহত হয়।
গৌরাঙ্গ তরফদার (৫০), তার স্ত্রী মিনতি তরফদার (৪০), বড় ভাইয়ের স্ত্রী সবিতা তরফদার (৪৬) এবং তার ছোট বোন রূপকো তরফদার (৩৫) কে মারাত্বক আহত অবস্থায় চিকিত্সার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজে প্রেরন করা হয়।
মো. কামাল উদ্দিন বাদশা ওরফে কামাল চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের একজন প্রভাবশালী নেতা এবং তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপরাধের অভিযোগ রহিয়াছে। তার অত্যাচোরে হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন কখনোই মুখ খুলে কোন অভিযোগ করতে সাহস পায় না।
“দৈনিক সংবাদ” পত্রিকায় ৩০ শে জানুয়ারী ২০১৯ ইং তারিখে প্রকাশিত এক প্রতিবেদন হইতে জনা যায় যে, তদন্ত কর্মকর্তা উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তার সামনে হিন্দু ধর্মাবলম্বী গোপাল চন্দ্র দাসকে জীবননাশের হুমকি দিয়েছেন তিনি। এর আগেও জমির দাবি করলে প্রাণে শেষ করে অথবা ইন্ডিয়া পাঠিয়ে দেবার হুমকি দিয়েছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান। এ জনপ্রতিনিধি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির সাথে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের কমান্ডারও বটে।