কুমিল্লা।।
জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা, ৬০ দশকে বাঙালি জাতীয়তাবাদী সংগ্রাম-স্বাধীকার সংগ্রাম-স্বাধীনতা সংগ্রামের অন্যতম সংগঠক, ছাত্রলীগের বিশিষ্ট নেতা, ১৯৬৩ সালে ছাত্রলীগ কুমিল্লা জেলা কমিটির সভাপতি ও ১৯৬৮ সালে কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি, ৬৮-৬৯ শিক্ষাবর্ষে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ ছাত্র সংসদের ভিপি, ৬৯-এর গণঅভ্যূত্থানে কুমিল্লার নেতা, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, বিএলএফ/মুজিব বাহিনীর সদস্য হিসাবেই মুক্তিযুদ্ধে ২নং সেক্টরে রণাঙ্গনে বীর মুক্তিযোদ্ধা এড. হাবিব উল্লাহ চৌধুরী আজ বুধবার রাতে ঢাকার মিরপুরস্থ ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না……রাজেউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর। তিনি দীর্ঘদিন যাবত হৃদরোগসহ বার্ধক্যজনিত অসুস্থ্যতায় ভুগছিলেন। তিনি এক ছেলে, এক মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন, রাজনৈতিক সহকর্মী-অনুসারী-গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। মরহুমের মরদেহ তার পুত্রের জন্য ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের হিমঘরে রাখা হয়েছে। তার পুত্র কাতার থেকে আসলে আগামীকাল ৪ জুলাই সকাল ৭ টায় লালমাটিয়াস্থ বায়তুল হারাম মসজিদে প্রথম নামাজে জানাজা, এরপর সকাল ১০:৩০ টায় কুমিল্লা বার এসোসিয়েশন চত্বরে দ্বিতীয় এবং দুপুর ১:৩০ টায় কুমিল্লা টাউন হল মাঠে সর্বস্তরের শ্রদ্ধার জন্য রাখা হবে ও তৃতীয় নামাজে জানাজা শেষে চাঁদপুর জেলার হাজিগঞ্জস্থ পারিবারিক গোরস্থানে দাফন কাজ সম্পন্ন হবে। এখানে উল্লেখ্য ৬০ দশকে ছাত্রলীগের বিশিষ্ট নেত্রী, জাসদের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা, বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রয়াত মমতাজ বেগম হাবিব উল্লাহ চৌধুরীর সহধর্মিণী ছিলেন।

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ সভাপতি ও সাবেক তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু এমপি এবং সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার এমপি আজ এক শোক বার্তায় জাসদের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা, বীর মুক্তিযোদ্ধা এড. হাবিব উল্লাহ চৌধুরীর মৃত্যুতে গভীর শোক এবং শোক সন্তপ্ত পরিবার-স্বজন-সহকর্মীদের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।