ব্রাহ্মণবাড়িয়া।। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার দেবগ্রামে অপহরণকারী সন্দেহে জামাল হোসেন (২০) নামে এক যুবককে গণপিটুনি দিয়েছে উত্তেজিত জনতা।
বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) সকালের দিকে এ ঘটনা ঘটে। আহত জামাল ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার কাজীপাড়া মহল্লার মৃত জালাল মিয়ার ছেলে। আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রসুল আহমেদ নিজামী বলেন, ঢাকার আজিমপুর এলাকার টিটু মিয়ার মেয়ে জান্নাত (১১) তার নানাবাড়ি কসবা উপজেলার গোপীনাথপুর যাওয়ার জন্য ট্রেনে করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আসে। সে ঢাকার নোয়াব হাবিবুল্লা স্কুল অ্যান্ড কলেজের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী। সকালে জান্নাতকে একা ঘুরাফেরা করতে দেখে জামাল তাকে নানাবাড়ি পৌঁছে দেওয়ার কথা বলেন। পরে তারা রেললাইন ধরে হেটে যাওয়ার সময় স্থানীয়দের সন্দেহ হলে জামালকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে। জান্নাতের পরিবারকে খবর দেওয়া হয়েছে। তাকে অপহরণ করা হয়েছিল কিনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলেও জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা।
"/>

আখাউড়ায় অপহরণকারী সন্দেহে এক যুবককে গণপিটুনি

11 July, 2019 : 11:12 am ১০৫

ব্রাহ্মণবাড়িয়া।।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার দেবগ্রামে অপহরণকারী সন্দেহে জামাল হোসেন (২০) নামে এক যুবককে গণপিটুনি দিয়েছে উত্তেজিত জনতা।

বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) সকালের দিকে এ ঘটনা ঘটে। আহত জামাল ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার কাজীপাড়া মহল্লার মৃত জালাল মিয়ার ছেলে।

আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রসুল আহমেদ নিজামী বলেন, ঢাকার আজিমপুর এলাকার টিটু মিয়ার মেয়ে জান্নাত (১১) তার নানাবাড়ি কসবা উপজেলার গোপীনাথপুর যাওয়ার জন্য ট্রেনে করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আসে। সে ঢাকার নোয়াব হাবিবুল্লা স্কুল অ্যান্ড কলেজের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী। সকালে জান্নাতকে একা ঘুরাফেরা করতে দেখে জামাল তাকে নানাবাড়ি পৌঁছে দেওয়ার কথা বলেন। পরে তারা রেললাইন ধরে হেটে যাওয়ার সময় স্থানীয়দের সন্দেহ হলে জামালকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে।

জান্নাতের পরিবারকে খবর দেওয়া হয়েছে। তাকে অপহরণ করা হয়েছিল কিনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলেও জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা।

[gs-fb-comments]