ডেস্ক।।

বলিউডের কিংবদন্তি অভিনেত্রী শ্রীদেবীর মৃত্যু হয়েছে গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে। তার মৃত্যু রহস্যময় হয়ে আছে আজও। গুণী এই অভিনেত্রীকে আসলে খুন করা হয়েছে এমন অভিযোগ উঠেছে। ভারতীয় জেলের ডিজিপি ঋষিরাজ সিং এই অভিনেত্রীর মৃত্যু নিয়ে নতুন করে বিতর্ক তৈরি করেছেন।

শ্রীদেবীর মৃত্যুকে দুর্ঘটনা বলে মেনে নিতে নারাজ তিনি। তার দাবি, পরিকল্পিতভাবে খুন করা হয়েছে শ্রীদেবীকে। এই মৃত্যুর জন্য দায়ী বনি কাপুর, এমন অভিযোগ আগেই উঠেছিল। সম্প্রতি বনিকাপুরের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে ফরেনসিক এক্সপার্টের বিস্ফোরক এ দাবিকে কোনো পাত্তাই দেননি তিনি।

ঘটনার বিষয়ে জানতে উৎসুক হয়ে পড়ে সংবাদমাধ্যমগুলোও। এ বিষয়েই বনি কাপুরের সঙ্গে যোগাযোগ করে একটি ওয়েব পোর্টাল। ঋষিরাজ সিংয়ের এহেন মন্তব্যের বিষয়ে বনির প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে বনি কোনো উত্তর দেননি। এটাকে ভিত্তিহীন গল্প বলেছেন তিনি।

এদিকে ঋষিরাজ বলেছিলেন, আমার বন্ধু প্রয়াত ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ ড. উমাধাথন অনেক দিন আগে আমাকে জানিয়েছিল অভিনেত্রী শ্রীদেবীর মৃত্যুর নেপথ্যে খুন হয়ে থাকতেই পারে। কিন্তু এটা কখনই দুর্ঘটনাবশত মৃত্যু নয়।

২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে দুবাইয়ের এক পারিবারিক বিয়ের অনুষ্ঠানে গিয়ে শ্রী দেবীর মৃত্যু হয়। হোটেলের বাথরুমের বাথট্যাবে ডুবে গিয়ে শ্রীদেবীর মৃত্যু হয়েছে বলে ময়নাতদন্তের রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়। সেই সময়ও এ রিপোর্ট বিশ্বাস করেননি অনেকেই। নতুন করে তদন্তের দাবিতে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন এক পরিচালক। তাতেও তেমন কোনো লাভ হয়নি।

শ্রীদেবীর মৃত্যুর দেড় বছর পর ঋষিরাজ সিং সেই আগুনেই ঘি ঢেলেছেন। তিনি জানান, তার বন্ধু ড. উমাধাথন তাকে বলেছেন, একজন মানুষ যতই মদ্যপ থাকুক না কেন এক হাঁটু জলে ডুবে যাবে না। সে তখনই ডুবে যাবে যখন তার পা ধরে টানা হবে এবং মাথা জলে চুবিয়ে রাখা হবে। এ মন্তব্যের পর থেকেই শ্রীদেবীর মৃত্যু নিয়ে আবারও বিতর্কের ঝড় উঠেছে বলিউডে।