সাংবাদিককে বাড়ী থেকে তুলে নেয়ার হুমকী দিলেন সর্ভেয়ার মাহাবুব

17 July, 2019 : 4:47 pm ১৩০

ব্রাক্ষণবাড়িয়া।।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার সার্ভেয়ার (মাস্টার রোল) মো. মাহাবুবুর রহমানের বিরুদ্ধে একজন সাংবাদিককে হুমকি দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

এ বিষয়ে সাংবাদিক ইফতেয়ার রিফাত ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় নিজের নিরাপত্তা চেয়ে সাধারণ ডায়েরী করেছেন। যাহার নং ১০৬৯, তারিখ ১৭/৭/২০১৯ ইং

জিডি সূত্রে জানা যায়, জাতীয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘বাংলার চোখ’ এর জেলা প্রতিনিধি সাংবাদিক ইফতেয়ার রিফাত ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার মাস্টার রোলে চাকুরীরত সার্ভেয়ার মাহাবুবুর রহমান এর বিভিন্ন অপকর্ম ও দুর্ণীতির বিষয়ে প্রতিবেদন তৈরীর উদ্দেশ্যে বিভিন্ন মহল থেকে তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করতে থাকেন। এই সময়ে মাহাবুব তার অপকর্মের বিষয়ে পত্রিকায় রিপোর্ট হচ্ছে জানতে পেরে সাংবাদিক ইফতেয়ার রিফাতের বাড়িতে গিয়ে তাকে প্রকাশ্যে ভয়ভীতি প্রদর্শনপূর্বক দেখে নেয়ার হুমকি দেয়।

এ বিষয়ে মুঠোফোনে মাহাবুব বলেন, আমি পৌরসভার ফুল সার্ভেয়ার। যিনি দায়িত্বে আছেন (মাকসুদ) তিনি নতুন আসছেন, তার পৌরসভা এরিয়া চিনতেই ৫ বছর লাগবে। অফিস আদেশে আমি সার্ভেয়ারের দায়িত্ব পালন করতেছি। হুমকির বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি তা অস্বীকার করে বলেন, আর কিছুদিন পরে আমি চাকুরী ছাইড়া সাংবাদিক অইয়া হের সাথে দরবারটা করতে হইবো। তার বাড়িতে থেকে খেয়ে  মানুষ হয়েছে এমন কয়েকজন সাংবাদিকের নাম স্পষ্ট উচ্চারণ করে আরো বলেন, রিফাত আমার কাছে এক লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করেছে। তার নামে আমি চাঁদাবাজির মামলা দিমু। আমি চাকুরী করি আর না করি হেরে দেইক্খা দিমু।

কিছু সময় পরে মাহাবুব প্রতিবেদকের মুঠোফোনে কল দিয়ে বলেন, আমি কয়েকজন সাংবাদিককে আপনার নাম বলেছি। তারা কেউতো  আপনাকে চিনেনা।

রিফাতের বিরুদ্ধে আনিত এক লক্ষ টাকা চাঁদা দাবীর  বিষয়টি প্রসঙ্গে সত্যতা জানতে আবারো মাহবুবকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, আমি চেইত্তা (রেগে) এই এক লক্ষ টাকা রিফাত চাঁদা দাবী করেছে বলে আপনাকে বলেছি।

সাংবাদিক রিফাত বলেন, আমার জীবনের নিরাপত্তার স্বার্থে থানায় সাধারণ ডায়েরী করেছি। মাহাবুব ভাই তার অপকর্ম ধামাচাপা দিতে আমার বিরুদ্ধে এক লক্ষ টাকা চাঁদা দাবীর বিষয়টি বলেছেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার মেয়র নায়ার কবির বলেন, আমি দুইজনকেই চিনি। দুইজনের বাড়িইতো একই এলাকাতে। মাহাবুবের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের সত্যতা পেলে আমি অবশ্যই ব্যবস্থা নিব।

[gs-fb-comments]