ব্রাহ্মণবাড়িয়া।।  পূর্ব বিরোধের জের ধরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় মলাই মিয়া (৪৫) নামে এক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন।
গুরুতর আহতাবস্থায় সোমবার (২৯ জুলাই) রাতে ঢাকা নেওয়ার পথে তিনি মারা যান। এরআগে, বিকেলে সদর উপজেলার নাটাই দক্ষিণ ইউনিয়নের বিলকেন্দাই গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। মলাই মিয়া সদর উপজেলার বিলকেন্দাই গ্রামের মৃত দুধ মিয়ার ছেলে। পুলিশ জানায়, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে মাস্টার বাড়ি ও খন্দকার বাড়ির মধ্যে বিরোধ চলছিল। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র তাদের বিরোধ চরম আকার ধারণ করে। এর জের ধরে বিকেলে দু’পক্ষের মধ্যে ফের সংঘর্ষ বাধে। এতে খন্দকার বাড়ির মলাই মিয়াসহ উভয়পক্ষের ২০ জন আহত হন। গুরুতর অবস্থায় মলাই মিয়াকে ঢাকা নেওয়ার পথে তিনি মারা যান। বাকিদের জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সেলিম উদ্দিন জানান, সংঘর্ষে নিহতের খবর পেয়েছি। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এদিকে আজ সাকালে আবদুর রউফ নামে গুরুত্বর আহত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) আতিকুর রহমান দুইজনের মৃত্যুর বিষয়টিই  নিশ্চিত করেছেন।
"/>

ব্রাক্ষনবাড়িয়ায় আধিপত্ত বিস্তারকে কেন্দ্র দুই ব্যাক্তি খুন

30 July, 2019 : 5:40 am ১৮১

ব্রাহ্মণবাড়িয়া।।

 পূর্ব বিরোধের জের ধরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় মলাই মিয়া (৪৫) নামে এক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন।

গুরুতর আহতাবস্থায় সোমবার (২৯ জুলাই) রাতে ঢাকা নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।

এরআগে, বিকেলে সদর উপজেলার নাটাই দক্ষিণ ইউনিয়নের বিলকেন্দাই গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

মলাই মিয়া সদর উপজেলার বিলকেন্দাই গ্রামের মৃত দুধ মিয়ার ছেলে।

পুলিশ জানায়, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে মাস্টার বাড়ি ও খন্দকার বাড়ির মধ্যে বিরোধ চলছিল। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র তাদের বিরোধ চরম আকার ধারণ করে। এর জের ধরে বিকেলে দু’পক্ষের মধ্যে ফের সংঘর্ষ বাধে। এতে খন্দকার বাড়ির মলাই মিয়াসহ উভয়পক্ষের ২০ জন আহত হন। গুরুতর অবস্থায় মলাই মিয়াকে ঢাকা নেওয়ার পথে তিনি মারা যান। বাকিদের জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সেলিম উদ্দিন জানান, সংঘর্ষে নিহতের খবর পেয়েছি। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে আজ সাকালে আবদুর রউফ নামে গুরুত্বর আহত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) আতিকুর রহমান দুইজনের মৃত্যুর বিষয়টিই  নিশ্চিত করেছেন।

[gs-fb-comments]
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com