ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের দক্ষিণ লক্ষীপুর গ্রামের কান্দা পাড়ায় নাছির মিয়া (৫০) নামে এক ব্যক্তিকে নৃশংসভাবে হত্যা হয়েছেন। আজ রবিবার ভোরে পুলিশ তাঁর মরদেহ উদ্ধার করেছে। তবে, এ ঘটনায় এখনও (বেলা পৌনে ১২টা পর্যন্ত) কোনো মামলা হয়নি। পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ওই গ্রামের মৃত আবদুল লতিফের ছেলে আইসক্রিম ব্যবসায়ী নাছির মিয়া রাতের খাবার খেয়ে শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে গ্রামের পূর্ব পাড়ায় যাবার কথা বলে বের হয়ে যান। এরপর রাতে আর বাড়ি ফেরেননি। রবিবার ভোর সাড়ে ৬টার দিকে রোজিনা বেগম নামের এক নারী পূর্ব পাড়ার জনৈক জালাল মিয়ার বাগান বাড়িতে চার মেয়ে ও এক ছেলের জনক নাছির মিয়ার লাশ রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন। খবর পেয়ে নবীনগর থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নেয়। এস আই আবদুল আজিজ শেখ বলেন, লাশের ডান কান কাটা ও ডান চোখ থেঁতলানো রয়েছে। খুনিরা নৃশংসভাবে তাকে হত্যা করে ফেলে রেখে গেছে। নবীনগর থানার ওসি রণজিৎ রায় বলেন, এখনও মামলা হয়নি। তবে বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
"/>

নবীনগরে এক ব্যাক্তি খুন

10 November, 2019 : 6:16 am ১৭৩

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের দক্ষিণ লক্ষীপুর গ্রামের কান্দা পাড়ায় নাছির মিয়া (৫০) নামে এক ব্যক্তিকে নৃশংসভাবে হত্যা হয়েছেন। আজ রবিবার ভোরে পুলিশ তাঁর মরদেহ উদ্ধার করেছে। তবে, এ ঘটনায় এখনও (বেলা পৌনে ১২টা পর্যন্ত) কোনো মামলা হয়নি।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ওই গ্রামের মৃত আবদুল লতিফের ছেলে আইসক্রিম ব্যবসায়ী নাছির মিয়া রাতের খাবার খেয়ে শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে গ্রামের পূর্ব পাড়ায় যাবার কথা বলে বের হয়ে যান। এরপর রাতে আর বাড়ি ফেরেননি। রবিবার ভোর সাড়ে ৬টার দিকে রোজিনা বেগম নামের এক নারী পূর্ব পাড়ার জনৈক জালাল মিয়ার বাগান বাড়িতে চার মেয়ে ও এক ছেলের জনক নাছির মিয়ার লাশ রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন।

খবর পেয়ে নবীনগর থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নেয়। এস আই আবদুল আজিজ শেখ বলেন, লাশের ডান কান কাটা ও ডান চোখ থেঁতলানো রয়েছে। খুনিরা নৃশংসভাবে তাকে হত্যা করে ফেলে রেখে গেছে। নবীনগর থানার ওসি রণজিৎ রায় বলেন, এখনও মামলা হয়নি। তবে বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

[gs-fb-comments]