ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে যাতায়াতকারী যাত্রীদের নতুন করে একটি ফরম পূরণ করতে হবে। করোনা ভাইরাসের সতর্কতা হিসেবে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের ওই ফরমে মোট ১৫টি তথ্য দিতে হবে যাত্রীদেরকে। 
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন ডা. মো. শাহ আলম ও জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. ইমতিয়াজ আহমেদ এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তারা জানান, বৃহস্পতিবার (১২ মার্চ) সকাল থেকেই নতুন ওই ফরম পূরণ করতে হবে যাত্রীদের। এক পৃষ্ঠার ওই ফরমে যাত্রীদের নাম, ঠিকানা, মোবাইল ফোন নম্বর পাসপোর্ট নম্বর লিপিবদ্ধ করতে হবে। এছাড়া দুই সপ্তাহের মধ্যে কোন কোন দেশ ভ্রমণ করেছেন, চীনে ভ্রমণ করে থাকলে কোন শহরে ছিলেন এসব তথ্যও দিতে হবে। ফরমে যাত্রীদের স্বাক্ষরের পাশাপাশি স্বাস্থ্য কর্মকর্তার স্বাক্ষরের জন্যও জায়গা রাখা হয়েছে। ফরমের নিচের একটি অংশ ইমিগ্রেশন ব্যবহার করবে বলে বলা আছে। জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, এ সংক্রান্ত একটি আদেশ এসেছে। স্বাস্থ্য বিভাগ এ ফরম পূরণের বিষয়ে দায়িত্বে থাকবে। বিষয়টি নিয়ে সিভিল সার্জনের সঙ্গে কথা হয়েছে।
সিভিল সার্জন ডা. মো. শাহ আলম বলেন, বৃহস্পতিবার থেকে প্রত্যেক যাত্রীকে নির্ধারিত ওই ফরম পূরণ করা হবে। ওই ফরমে দেয়া তথ্য অনুসারে করোনা ভাইরাস বিষয়ে যাত্রী সম্পর্কে প্রাথমিক ধারণা পাওয়া যাবে। পাশাপাশি যাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার কার্যক্রমও অব্যাহত থাকবে।
উল্লেখ্য, এ বন্দর দিয়ে যাতায়াত করতে বাংলাদেশের ইমিগ্রেশনে ফরম পূরণ করতে হয়। এছাড়া কাস্টমস ও বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) কাছেও তথ্য লিপিবদ্ধ করতে হয়। এতে কমপক্ষে আধা ঘণ্টার মতো সময় লেগে যায় যাত্রীদের। নতুন এ ফরম পূরণ করতে গিয়ে যাত্রীদেরকে আরো অতিরিক্ত সময় ব্যয় করতে হবে।
"/>

আখাউড়ায় ভারতগামী যাত্রীদের ১৫ তথ্য দিতে হবে

11 March, 2020 : 3:20 pm ১৬৮
আখাউড়া।।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে যাতায়াতকারী যাত্রীদের নতুন করে একটি ফরম পূরণ করতে হবে। করোনা ভাইরাসের সতর্কতা হিসেবে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের ওই ফরমে মোট ১৫টি তথ্য দিতে হবে যাত্রীদেরকে। 
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন ডা. মো. শাহ আলম ও জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. ইমতিয়াজ আহমেদ এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তারা জানান, বৃহস্পতিবার (১২ মার্চ) সকাল থেকেই নতুন ওই ফরম পূরণ করতে হবে যাত্রীদের। এক পৃষ্ঠার ওই ফরমে যাত্রীদের নাম, ঠিকানা, মোবাইল ফোন নম্বর পাসপোর্ট নম্বর লিপিবদ্ধ করতে হবে। এছাড়া দুই সপ্তাহের মধ্যে কোন কোন দেশ ভ্রমণ করেছেন, চীনে ভ্রমণ করে থাকলে কোন শহরে ছিলেন এসব তথ্যও দিতে হবে। ফরমে যাত্রীদের স্বাক্ষরের পাশাপাশি স্বাস্থ্য কর্মকর্তার স্বাক্ষরের জন্যও জায়গা রাখা হয়েছে। ফরমের নিচের একটি অংশ ইমিগ্রেশন ব্যবহার করবে বলে বলা আছে। জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, এ সংক্রান্ত একটি আদেশ এসেছে। স্বাস্থ্য বিভাগ এ ফরম পূরণের বিষয়ে দায়িত্বে থাকবে। বিষয়টি নিয়ে সিভিল সার্জনের সঙ্গে কথা হয়েছে।
সিভিল সার্জন ডা. মো. শাহ আলম বলেন, বৃহস্পতিবার থেকে প্রত্যেক যাত্রীকে নির্ধারিত ওই ফরম পূরণ করা হবে। ওই ফরমে দেয়া তথ্য অনুসারে করোনা ভাইরাস বিষয়ে যাত্রী সম্পর্কে প্রাথমিক ধারণা পাওয়া যাবে। পাশাপাশি যাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার কার্যক্রমও অব্যাহত থাকবে।
উল্লেখ্য, এ বন্দর দিয়ে যাতায়াত করতে বাংলাদেশের ইমিগ্রেশনে ফরম পূরণ করতে হয়। এছাড়া কাস্টমস ও বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) কাছেও তথ্য লিপিবদ্ধ করতে হয়। এতে কমপক্ষে আধা ঘণ্টার মতো সময় লেগে যায় যাত্রীদের। নতুন এ ফরম পূরণ করতে গিয়ে যাত্রীদেরকে আরো অতিরিক্ত সময় ব্যয় করতে হবে।

[gs-fb-comments]