পিয়নের মারধরের শিকার হলেন হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা

12 March, 2020 : 3:21 pm ২০৫

ব্রাক্ষনবাড়িয়া।।

নিজ অফিসের পিয়নের মারধরের শিকার হলেন হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা। ঘটনার পর নড়ে-চড়ে বসেছে ঐ কার্যালয়ে কর্মকর্তা কর্মচারীরা। ঘটনাটি ঘটেছে নিজ অফিসের পিয়নের মারধরের শিকার হলেন হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা। ঘটনার পর নড়ে-চড়ে বসেছে ঐ কার্যালয়ে কর্মকর্তা কর্মচারীরা। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার (১২ মার্চ) সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সিভিল সার্জন কার্যালয়ে। জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সিভিল সার্জন কার্যালয়ের পিয়ন মোঃ জুয়েল মিয়া হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা হুমায়ুন কবিরের উপর বিল না দেওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে হামলা চালায়। এতে জুয়েলের মারধরের শিকার হয়ে আহত হন হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির। এসময় জুয়েল হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তার রুমের টেবিল চেয়ারও ভাংচুর করেন। হামলায় আহত হুমায়ুন কবিরকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
আহত হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির জানান, গত দুদিন আগে পিয়ন জুয়েল রিক্সা ভাড়ার একটি বিল জমা দেন। এ বিল নেওয়ার জন্য আমার উপর চাপ সৃষ্টি করেন জুয়েল। এমনকি গতকাল বুধবার সকালে বিল কেন দেরিতে হচ্ছে সে জন্য হুমায়ুন কবিরকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেন জুয়েল। এর জেরধরে আজ বৃহস্পতিবার সকালে এসে হুমায়ুনের রুমে এসে লোহার রড দিয়ে পেটাতে শুরু করেন জুয়েল। এসময় সিভিল সার্জন কার্যালয়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনার পরপরই সেখান থেকে সটকে পড়েন জুয়েল। হুমায়ুন আরো জানায়, অফিসের যাদের বাইসাইকেল আছে তারা যাতায়াত বাবদ কোন বিল পাবেনা। এটাই অফিসের নিয়ম। কিন্তু জুয়েল বাইসাইকেল থাকার পরও সে গত ৬ মাসের রিকসা ভাড়ার বিল জমা দেয়। এ বিল পরিশোধে বিলম্ব হওয়ায় আমার উপর ক্ষুব্ধ হয়ে হামলা করেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ শাহ আলম এ প্রতিবেদককে জানান, হামলার ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।     (১২ মার্চ) সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সিভিল সার্জন কার্যালয়ে। জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সিভিল সার্জন কার্যালয়ের পিয়ন মোঃ জুয়েল মিয়া হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা হুমায়ুন কবিরের উপর বিল না দেওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে হামলা চালায়। এতে জুয়েলের মারধরের শিকার হয়ে আহত হন হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির। এসময় জুয়েল হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তার রুমের টেবিল চেয়ারও ভাংচুর করেন। হামলায় আহত হুমায়ুন কবিরকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
আহত হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির জানান, গত দুদিন আগে পিয়ন জুয়েল রিক্সা ভাড়ার একটি বিল জমা দেন। এ বিল নেওয়ার জন্য আমার উপর চাপ সৃষ্টি করেন জুয়েল। এমনকি গতকাল বুধবার সকালে বিল কেন দেরিতে হচ্ছে সে জন্য হুমায়ুন কবিরকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেন জুয়েল। এর জেরধরে আজ বৃহস্পতিবার সকালে এসে হুমায়ুনের রুমে এসে লোহার রড দিয়ে পেটাতে শুরু করেন জুয়েল। এসময় সিভিল সার্জন কার্যালয়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনার পরপরই সেখান থেকে সটকে পড়েন জুয়েল। হুমায়ুন আরো জানায়, অফিসের যাদের বাইসাইকেল আছে তারা যাতায়াত বাবদ কোন বিল পাবেনা। এটাই অফিসের নিয়ম। কিন্তু জুয়েল বাইসাইকেল থাকার পরও সে গত ৬ মাসের রিকসা ভাড়ার বিল জমা দেয়। এ বিল পরিশোধে বিলম্ব হওয়ায় আমার উপর ক্ষুব্ধ হয়ে হামলা করেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ শাহ আলম এ প্রতিবেদককে জানান, হামলার ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

[gs-fb-comments]
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com