সরাইল।।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে বাবার মৃত্যুর দুই ঘন্টা পর ছেলের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল সোমবার ভোর রাতে উপজেলার পানিশ্বর ইউনিয়নের সীতাহরণ  গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।  গতকাল সোমবার সকালেই নামাজে জানাযা শেষে গ্রামের কবরস্থানে পাশাপাশি স্থানে তাদের লাশ দাফন করা হয়েছে। মারা যাওয়া ব্যক্তিরা হলেন, সীতাহরণ গ্রামের সাত্তার মিয়া-(৯০) ও তাঁর একমাত্র ছেলে ফজলুল হক- (৪০)। পানিশ্বর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দ্বীন ইসলাম বাবা-ছেলের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গত প্রায় দেড়বছর ধরে সাত্তার মিয়া বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন। সোমবার ভোররাতে সাত্তার মিয়া মারা গেলে এই শোক সহ্য করতে না পেরে  তার এক মাত্র ছেলে ছেলে রিকশা চালক ফজলুল হক দুই ঘন্টা পর  হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে (স্ট্রোক) মারা যান। তিনি বলেন, এ নিয়ে এলাকায় কোনো ধরণের সমস্যা নেই। সকালে নামাজে জানাযা শেষে গ্রামের কবরস্থানে পিতা-পুত্রের লাশ দাফন করা হয়। এ ব্যাপারে সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মোঃ নোমান মিয়া বলেন, ঘটনাশুনে সেখানে টীম পাঠিয়ে ছিলাম। তারা কারোরই জ্বর-সর্দি কাশি ছিলো না। এদের স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। এ ব্যাপারে সরাইল উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) এ.এস.এম মোসা  বলেন, ঘটনাটি তিনি জেনেছেন। দু’জনেরই স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। ইতিমধ্যেই বাবা ছেলের লাশ দাফন  করা হয়েছে।
"/>

সরাইলে দুই ঘন্টার ব্যবধানে পিতা- পুত্রের মৃত্যুহ

30 March, 2020 : 1:07 pm ২৩৩
সরাইল।।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে বাবার মৃত্যুর দুই ঘন্টা পর ছেলের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল সোমবার ভোর রাতে উপজেলার পানিশ্বর ইউনিয়নের সীতাহরণ  গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।  গতকাল সোমবার সকালেই নামাজে জানাযা শেষে গ্রামের কবরস্থানে পাশাপাশি স্থানে তাদের লাশ দাফন করা হয়েছে। মারা যাওয়া ব্যক্তিরা হলেন, সীতাহরণ গ্রামের সাত্তার মিয়া-(৯০) ও তাঁর একমাত্র ছেলে ফজলুল হক- (৪০)। পানিশ্বর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দ্বীন ইসলাম বাবা-ছেলের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গত প্রায় দেড়বছর ধরে সাত্তার মিয়া বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন। সোমবার ভোররাতে সাত্তার মিয়া মারা গেলে এই শোক সহ্য করতে না পেরে  তার এক মাত্র ছেলে ছেলে রিকশা চালক ফজলুল হক দুই ঘন্টা পর  হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে (স্ট্রোক) মারা যান। তিনি বলেন, এ নিয়ে এলাকায় কোনো ধরণের সমস্যা নেই। সকালে নামাজে জানাযা শেষে গ্রামের কবরস্থানে পিতা-পুত্রের লাশ দাফন করা হয়। এ ব্যাপারে সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মোঃ নোমান মিয়া বলেন, ঘটনাশুনে সেখানে টীম পাঠিয়ে ছিলাম। তারা কারোরই জ্বর-সর্দি কাশি ছিলো না। এদের স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। এ ব্যাপারে সরাইল উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) এ.এস.এম মোসা  বলেন, ঘটনাটি তিনি জেনেছেন। দু’জনেরই স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। ইতিমধ্যেই বাবা ছেলের লাশ দাফন  করা হয়েছে।

[gs-fb-comments]
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com