কসবায় জানালা ভেঙে ঘরে ঢুকে গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা

15 July, 2020 : 11:21 am ১৫৪

কসবা।।

ব্রা‏হ্মণবাড়িয়ার কসবায় জানালা ভেঙে ঘরে ঢুকে এক গৃহবধূকে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে গত মঙ্গলবার রাতে দুই বখাটেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, উপজেলার গোপীনাথপুর ইউনিয়নের গোপীনাথপুর গ্রামের মজনু মিয়া (৪০) ও মিজান মিয়া (৩০)। গ্রেপ্তারকৃতদের বুধবার সকালে ব্রা‏হ্মণবাড়িয়া বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গোপীনাথপুর ইউনিয়নের ওই গৃহবধূর (২০) বাবার বাড়ি। তার স্বামী প্রবাসে থাকেন। গত কয়েকদিন ধরে জ্বরে আক্রান্ত হওয়ায় পরিবারের অন্য সদস্যদের থেকে আলাদা অন্য একটি ঘরে থাকেন। গত ৯ জুলাই বৃহস্পতিবার রাতে ঘরে একা ঘুমিয়ে ছিলেন। গভীর রাতে মজনু মিয়া ও মিজান মিয়া নামে দুই বখাটে ঘরের জানালা ভেঙে ঘরে ঢুকে। এ সময় ওই গৃহবধূকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে কাপড় ছিড়ে তাকে বিবস্ত্র করে এবং গলায় চেপে ধরে তাকে ধর্ষনের চেষ্টা করেছে। তার চিৎকারে বাড়ির অন্য লোকজন বেরিয়ে এলে বখাটেরা দৌড়ে পালিয়ে যায়। পরদিন শুক্রবার ওই নারী বাদী হয়ে মজনু মিয়া ও মিজান মিয়াকে আসামী করে একটি ধর্ষনের চেষ্টার মামলা দায়ের করেন। গত মঙ্গলবার রাতে পুলিশ ওই মামলাটি থানায় রেকর্ড করে এবং রাতেই গোপীনাথপুর এলাকার একটি গোপন আস্তানা থেকে তাদের দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে।ওই গৃহবধূ বলেন, তিনি কয়েকদিন ধরে জ্বরে আক্রান্ত ছিলেন। এ কারনে অন্য একটি ঘরে একা থাকতেন। মজনু মিয়া ও মিজান মিয়া জানালা ভেঙে ঘরে ঢুকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে জোরপূর্বক তার পড়নের কাপড় ছিড়ে ফেলে দিয়ে তাকে ধর্ষনের চেষ্টা করেছে। তার চিৎকারে বাড়ির অন্য লোকজন বেরিয়ে এলে তারা দৌড়ে পালিয়ে যায়।কসবা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ লোকমান হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, ওই গৃহবধূকে জানালা ভেঙে ঘরে ঢুকে জোরপূর্বক ধর্ষনের চেষ্টা করেছে মজনু মিয়া ও মিজান মিয়া। তাদের বিরুদ্ধে ওই নারী বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেছে। তাদেরকে একটি গোপন আস্তানা থেকে গত মঙ্গলবার রাতে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতরা বখাটে ও উশৃঙ্খল প্রকৃতির লোক।

[gs-fb-comments]