কসবায় ড্রেন নির্মাণের ৩ দিনেই ধসে গেল ৪০ ফুট দেয়াল

২৮ জুলাই, ২০২০ : ৬:৪৪ পূর্বাহ্ণ ১২

কসবা।।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় ড্রেন নির্মাণের ৩ দিনের মধ্যেই ধসে গেল প্রায় ৪০ ফুট দেয়াল। নিম্মমানের কাজের অভিযোগ উঠেছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে। ডিজাইনেও পরিবর্তন করা হয়েছে ড্রেন নির্মাণের। নির্মাণের ৩ দিনের মধ্যেই ড্রেনের দেয়াল ধসে যাওয়ার ঘটনায় স্থানীয় ও সচেতন মহলের মাঝে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে। সংশ্লিষ্টরা বলছে ড্রেনের পাশে নবনির্মিত ভবনের মাটির চাপেই এ দেয়াল ধসে গেছে। জানা যায়, কসবা পৌরসভার অধীনে বাজারের পানি নিস্কাশনের জন্য সাড়ে ১২ হাজার স্কয়ার ফিটের ড্রেন নির্মাণের কাজ পায় মুন্সি এন্ড সন্স নামে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। কাজের ব্যায় ধরা হয় ৫৫ লাখ ৭৫ হাজার টাকা। ৮ফুট উচ্চতা ও ৪ ফুট প্রসস্ত মাপ ধরে কাজ দেয়া ওই প্রতিষ্ঠানকে। গত ১৯ জুলাই কসবা পুরাতন বাজারের জনতা টাওয়ার এলাকায় প্রায় ৪০ ফুট নবনির্মিত ড্রেনের দেয়াল ধসে পড়ে। কাজ শেষ না হতেই নবনির্মিত ড্রেনের দেয়াল ধসে পড়ায় নিম্ম মানের কাজের অভিযোগ উঠেছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে। স্থানীয়রা বলছে ড্রেনের পাশে মাটির কোনো প্রকার চাপ নেই। সংশ্লিষ্টদের অবহেলা ও নিম্নমানের কাজের কারনেই ড্রেনের দেয়াল ধসে পড়েছে।এ বিষয়ে পৌরসভার প্রকৌশলীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ডিজাইন পরিবর্তন হয়েছে মেয়র সাহেবের নির্দেশে। তবে ভেংগে যাওয়া ড্রেন ও দেয়াল ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান পুনরায় নির্মাণ করবে বলে জানান তিনি। কাজ নিম্মমানের হয়েছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি অসুস্থ আছেন বলে মুঠোফোনের লাইন কেটে দেন। এ বিষয়ে কসবা পৌরমেয়র মো. এমরান উদ্দিন জুয়েলের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, ড্রেনের পাশে নতুন নির্মাণাধীন একটি টাওয়ারের মাটির চাপে ড্রেনের দেয়াল ধসে গেছে।ডিজাইন পরিবর্তন করা বিষয়ে মেয়র বলেন, প্রকল্প পরিচালকের অনুমতি নিয়েই ডিজাইন পরিবর্তন করা হয়েছে। বাজারের পানি নিস্কাশনের সুবিধার জন্যই তা করা হয়েছে। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মুন্সি এন্ড সন্স’র স্বত্বাধিকারী নাফিউল আলম বায়েছের সাথে কথা বলার জন্য মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

[gs-fb-comments]