বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোটের উদ্যোগেশ্রী কৃষ্ণের জন্মাষ্টমী পালিত

11 August, 2020 : 3:15 pm ২৮৫

ঢাকা।।

বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট ঢাকা মহানগর কমিটির উদ্যোগে পরমেশ্বর ভগবান শ্রী কৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উপলক্ষ্যে আজ বিকাল ৪ টায় ডিএনসিসির অন্তর্গত বাড্ডা থানাধীন মেরুল নিমতলী মন্দির প্রাঙ্গনে এক বশেষ আলোচনা সভা ও বিশ্ব শান্তি কল্পে এক প্রার্থনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। পরমেশ্বর ভগবান শ্রী কৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উপলক্ষ্যে উক্ত আলোচনা সভা ও প্রার্থনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সম্মানিত সভাপতি ডঃ সোনালী দাস এবং প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাধারণ সম্পাদক ডাঃ মৃত্যুঞ্জয় কুমার রায়, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যথাক্রমে হিন্দু মহাজোটের হিন্দু মহাজোটের সিঃ সাধারণ সম্পাদক উত্তম কুমার দাস, সহ সমন্নয়ক সুপ্রীম কোর্টের বিশিষ্ট আইনজীবী এডভোকেট তারক চন্দ্র রায়, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তাপস কুমার বিশ্বাস, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুশীল কুমার মিত্র, প্রচার সম্পাদক গৌতম হালদার প্রান্ত, নবগ্রাম সেবাশ্রম ট্রাস্টের পরিচালক ও হিন্দু মহাজোটের যুগ্ম সম্পাদক বাবু প্রবীণ হালদার। এছাড়াও ঢাকা মহানগর হিন্দু মহাজোটের নেতৃবৃন্দ। আলোচনা সভায় বক্তাগণ পরমেশ্বর ভগবান শ্রী কৃষ্ণের জীবনী ও তাঁর মুখ নিসৃত বাণী শ্রীমদভগবদগীতা থেকে আমাদের শিক্ষা লাভ করে মানব জীবনে তা প্রয়োগের উপর আলোকপাত করেন। হিন্দু মহাজোট সাধারণ সম্পাদক ডাঃ মৃত্যুঞ্জয় কুমার রায় বলেন “হিন্দু মহাজোটের মূল চালিকা শক্তিই হচ্ছে পরমেশ্বর ভগবান শ্রী কৃষ্ণের বর্ণাঢ্য জীবনী এবং শ্রীমদভগবদগীতায় তাঁর নির্দেশনা।” সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক উত্তম কুমার দাস বলেন “পরমেশ্বর ভগবান শ্রী কৃষ্ণের সংগ্রাম মুখর জীবন আমাদেরকে দেশ ও জাতির জন্য নিজেদের উৎসর্গ করার অনুপ্রেরণা যুগায়। আমাদের আমাদের হিন্দু সমাজ আজ নানান ভাবে সামাজিক ও রাজনৈতিক বৈষম্যের শিকার এবং নির্যাতিত নিপীড়িত, এই পরিস্থিতি থেকে অতিক্রম করতে হলে পরমেশ্বর ভগবান শ্রী কৃষ্ণের মত অন্যায়ের বিরুদ্ধে আমাদের একাগ্রচিত্তে সংগ্রামে অবতীর্ণ হতে হবে।” অন্যান্য বক্তাগণ ও তাদের বক্তব্যে পরমেশ্বর ভগবান শ্রী কৃষ্ণের জীবনী থেকে শিক্ষা নিয়ে আমাদেরকে মানব কল্যানে ব্রত হওয়ার আহব্বান জানান। পরিশেষে সমস্ত বিশ্বের মঙ্গল কামনায় ও করোনা মহামারী থেকে দ্রুত পরিত্রাণের জন্য বিশেষ প্রার্থনার মাধ্যমে আজকের অনুষ্ঠানের সমাপনী হয়।

[gs-fb-comments]