আখাউড়া।। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া আন্তর্জাতিক ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে ঢাকায় নবনিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী সোমবার সকালে ত্রিপুরা সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছেন। দুপুরে তিনি ঢাকায় পৌঁছাবেন।আগামী ৮ অক্টোবর রাষ্ট্রপতির কাছে পরিচয়পত্র পেশ করবেন তিনি।সকালে আখাউড়া আন্তর্জাতিক স্থলবন্দর চেকপোষ্টে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান ভারতের সবচেয়ে নিকটতম প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশ। বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নের কাজ করার সুযোগ পেয়ে আমি আনন্দিত। এখন বাংলাদেশ সীমান্তে আমি এসেছি। আমাদের কাছে বাংলাদেশের প্রত্যাশার কথা শুনব এবং উভয় দেশের প্রধানমন্ত্রীকে সেটি জানাব।তিনি বলেন, ভারতে আমরা বাংলাদেশকে আমাদের সবচেয়ে ঘনিষ্ঠ বন্ধু মনে করি। বাংলাদেশের সঙ্গে আরও কীভাবে অংশরীদারিত্ব বাড়ানো যায় সেটি নিয়ে আমি কাজ করব। মহামান্য রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করার পরই আমি কথা বলব। এখন কিছু বলা অনুচিত হবে। অন্যথায় মানুষ বলবে আমি বেশি বলে ফেলছি।ভারতের পররাষ্ট্র ক্যাডারের ১৯৯২ ব্যাচের কর্মকর্তা বিক্রম দোরাইস্বামী দেশটিরর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এসময় অনন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের চট্রগ্রামে নিযুক্ত ভারতের সহকারী হাইকমিশনার, আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রমূখ।"/>

আমরা বাংলাদেশকে আমাদের সবচেয়ে ঘনিষ্ঠ বন্ধু মনে করি—নবনিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার

5 October, 2020 : 10:11 am ২৭৯
আখাউড়া।।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া আন্তর্জাতিক ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে ঢাকায় নবনিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী সোমবার সকালে ত্রিপুরা সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছেন। দুপুরে তিনি ঢাকায় পৌঁছাবেন।আগামী ৮ অক্টোবর রাষ্ট্রপতির কাছে পরিচয়পত্র পেশ করবেন তিনি।সকালে আখাউড়া আন্তর্জাতিক স্থলবন্দর চেকপোষ্টে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান ভারতের সবচেয়ে নিকটতম প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশ। বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নের কাজ করার সুযোগ পেয়ে আমি আনন্দিত। এখন বাংলাদেশ সীমান্তে আমি এসেছি। আমাদের কাছে বাংলাদেশের প্রত্যাশার কথা শুনব এবং উভয় দেশের প্রধানমন্ত্রীকে সেটি জানাব।তিনি বলেন, ভারতে আমরা বাংলাদেশকে আমাদের সবচেয়ে ঘনিষ্ঠ বন্ধু মনে করি। বাংলাদেশের সঙ্গে আরও কীভাবে অংশরীদারিত্ব বাড়ানো যায় সেটি নিয়ে আমি কাজ করব। মহামান্য রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করার পরই আমি কথা বলব। এখন কিছু বলা অনুচিত হবে। অন্যথায় মানুষ বলবে আমি বেশি বলে ফেলছি।ভারতের পররাষ্ট্র ক্যাডারের ১৯৯২ ব্যাচের কর্মকর্তা বিক্রম দোরাইস্বামী দেশটিরর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এসময় অনন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের চট্রগ্রামে নিযুক্ত ভারতের সহকারী হাইকমিশনার, আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রমূখ।

[gs-fb-comments]